BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘যেন সামনে বাবা বসে রয়েছেন’, মোদি-শাহর আশীর্বাদে আপ্লুত মন্ত্রী দেবশ্রী

Published by: Tanujit Das |    Posted: May 31, 2019 4:44 pm|    Updated: June 1, 2019 4:44 pm

An Images

তনুজিৎ দাস: নির্বাচনী যুদ্ধে এক ঢিলে দুই পাখি মেরেছেন তিনি৷ রায়গঞ্জে হারিয়েছেন সিপিএমের মহম্মদ সেলিম ও কংগ্রেসের দীপা দাশমুন্সিকে৷ তাঁর প্রচারে এসে অমিত শাহ নিজে জানিয়েছিলেন, জিতলে তাঁকে মন্ত্রী করা হবে৷ সর্বভারতীয় সভাপতির মান রেখেছেন তিনি৷ তাই তাঁকে দেওয়া কথাও রেখেছেন মোদি-শাহরা৷ নয়া মন্ত্রিসভায় নারী ও শিশুকল্যাণ দপ্তরের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব রায়গঞ্জের বিজেপি সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরির কাঁধে দিয়েছেন তাঁরা৷ এই সুযোগ পেয়ে স্বভাবতই সম্মানিতবোধ করছেন বলে জানান রাজ্য বিজেপির এই সাধারণ সম্পাদিকা৷ বলেন, ‘কাজটা বেশ চ্যালেঞ্জের’৷

[ আরও পড়ুন: ফের উত্তপ্ত উপত্যকা, সোপিয়ান থেকে দুই জঙ্গির দেহ উদ্ধার ভারতীয় সেনার ]

বৃহস্পতিবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-সহ অন্যান্য হেভিওয়েট মন্ত্রীদের সঙ্গে শপথ নেন দেবশ্রী চৌধুরি৷ জানান, তাঁকে এই সম্মান দেওয়ার জন্য মোদি-শাহের কাছে কৃতজ্ঞ তিনি৷ ‘অতবড় মঞ্চে দেশ-বিদেশের সম্মানিত ব্যক্তিদের সামনে শপথবাক্য পাঠ করতে কি একটুও পা কাঁপছিল?’ সংবাদ প্রতিদিন-এর প্রশ্নের উত্তরে নব নির্বাচিত এই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান, ‘‘না তেমন কিছু হয়নি৷ কারণ সামনে যে দু’জন ব্যক্তি বসেছিলেন, ওনারা খুবই পরিচিত৷ ওনারা সামনে থাকায়, মনে হচ্ছিল বাবা বসে রয়েছেন৷ সামনের দু’জন অপরিচিত থাকলে অসুবিধা হত৷ তবে ওনারা আমার পরিচিত৷ মাটির কাছাকাছি থাকা মানুষ৷ আমি যখন শপথবাক্য পাঠ করতে হেঁটে যাচ্ছিলাম, ওনারা হাততালি দিয়ে আমাকে উজ্জীবিত করছিলেন৷ পরে আমাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন৷’’

নারী ও শিশুকল্যান মন্ত্রকের মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পাওয়ায় স্বভাবতই খুশী তিনি৷ কিন্তু চ্যালেঞ্জও যে কম নয়, তা স্বীকার করে নিয়েছেন দেবশ্রী চৌধুরি৷ জানিয়েছেন, গত পাঁচ বছরে মোদি সরকার যেভাবে মহিলাদের উন্নয়নের কাজ করেছে, এবারও সেই কাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই তাঁর লক্ষ্য৷ শীর্ষ নেতারা তাঁর উপর ভরসা করে যে দায়িত্ব কাঁধে তুলে দিয়েছেন, তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করাই তাঁর উদ্দেশ্য৷ পাশাপাশি, নিজের কেন্দ্র রায়গঞ্জের জন্যও কিছু করতে চান এলাকার সাংসদ৷ বলেন, ‘‘রায়গঞ্জের রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা ভাল করাই এখন তাঁর প্রধান কাজ৷’’

[ আরও পড়ুন: গান্ধী গড় দখল করে নয়া চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত ‘জায়ান্ট কিলার’ স্মৃতি ]

বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তনি দেবশ্রী চৌধুরি বরাবরই আরএসএসের ঘরের মেয়ে হিসাবে পরিচিত৷ উত্তরবঙ্গের মেয়ে হয়েও কলকাতায় এসে নিজের রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন তিনি৷ ২০১৪-তে বর্ধমান-দুর্গাপুর কেন্দ্র থেকে বিজেপির টিকিটে লড়াই করেন৷ তবে সেবার পরাজিত হন৷ কিন্তু এবার লক্ষ্যভেদ করেন তিনি৷ রায়গঞ্জের প্রার্থী হয়ে পরাজিত করেন সিপিএমের হেভিওয়েট প্রার্থী মহম্মদ সেলিম ও কংগ্রেসের দীপা দাশমুন্সিকে৷ সোজা পাড়ি দিলেন, রাজধানীতে৷ পেলেন মন্ত্রিত্ব৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement