২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সংক্রমণ রুখতে ভাবিজি পাঁপড় খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন, সেই মন্ত্রীই এবার করোনা পজিটিভ

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: August 8, 2020 10:03 pm|    Updated: August 9, 2020 1:53 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah), পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধানের (Dharmendra Pradhan) পর এবার আরও দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর শরীরে বাসা বাঁধল মারণ করোনা ভাইরাস। এঁদের মধ্যে একজন কেন্দ্রীয় জলসম্পদ মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী তথা করোনা রুখতে ভাবিজি পাঁপড় খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া অর্জুন রাম মেঘওয়াল (Arjun Ram Meghwal)। তাঁকে দিল্লি এইমসে ভর্তি করা হয়েছে। অপরজন কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী কৈলাশ চৌধুরি। তিনি ভর্তি যোধপুরের একটি হাসপাতালে।

[আরও পড়ুন: উত্তর-পূর্ব ভারত থেকে পরিচ্ছন্নতার পাঠ নেওয়া উচিত, বললেন মোদি]

শনিবার সন্ধ্যেবেলাতেই সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, করোনা পজিটিভ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুন মেঘওয়াল। তবে কয়েকদিন আগেই শিরোনামে এসেছিলেন মোদি সরকারের এই মন্ত্রী। অতিমারীর যুগে সংক্রমণ মোকাবিলায় বিশেষ ধরনের পাঁপড় বাজারে এনেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাঁর দাবি ছিল, এই পাঁপড় খেলেই শরীরে তৈরি হবে অ্যান্টিবডি। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কতখানি পারদর্শী এই পাঁপড়, তার বিস্তারিত বর্ণনাও দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাঁর এমন অদ্ভুত দাবির ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতে বিশেষ সময় নেয়নি। যদিও শেষপর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হওয়ার হাত থেকে বাঁচতে পারলেন না। অন্যদিকে, মোদি সরকারের আরেক মন্ত্রী কৈলাস চৌধুরিও (Kailash Chaudhary) করোনা পজিটিভ। নিজেই টুইট করে সেকথা জানান। লেখেন, ‘‌‘‌গতকাল রাতে করোনার অল্প কিছু উপসর্গ দেখা দেওয়ায় স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাই। রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। গত কয়েকদিন যাঁরা যাঁরা আমার সংস্পর্শে এসেছেন দয়া করে তাঁরা নিজেদের এবং পরিবারের লোকেদের স্বাস্থ্যপরীক্ষা করান। যাঁরা এই সময়ে আমার খোঁজ নিয়েছেন তাঁদের অসংখ্য ধন্যবাদ।’‌’‌

 

এর আগে গত ২ আগস্ট কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, তিনি করোনা (Corona) পজিটিভ। তারপরই তাঁকে ভর্তি করা হয় গুরুগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে। দু’‌দিন পর ৪ আগস্ট করোনা পজিটিভ হন কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। তিনিও গুরুগ্রামের ওই হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

[আরও পড়ুন: ‌‘‌জয় শ্রী রাম’, ‘‌মোদি জিন্দাবাদ’ না বলার ফল, বেধড়ক মার মুসলিম অটোচালককে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement