২৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  রবিবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে হাজারও অভিযোগ রয়েছে বিরোধীদের। কিন্তু তাঁর ধর্মে মতি নেই, এমন অভিযোগ বিরোধীরাও করতে পারবেন না। নিন্দুকেরা বলেন, প্রশাসনিক কাজকর্ম ঠিকঠাক না করলেও ধর্মকর্ম ভালই করেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। রবিবারও যোগী আদিত্যনাথকে দেখা গেল ধর্মে মনোনিবেশ করতে। রামভক্ত হনুমানের মূর্তির জন্য আস্ত একটা সোনার মুকুট উপহার দিলেন তিনি। মুকুটটির ওজন আড়াই কেজি, মূল্য প্রায় এক কোটি টাকা।

[আরও পড়ুন: ‘পালিয়ে বিয়ে করলে বাড়বে কন্যাভ্রূণ হত্যা’, সাক্ষীর বিরোধিতায় টুইট বিজেপি বিধায়কের]

রবিবার স্বামী কল্যাণ দেবের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শুকরাতাল জেলায় যান উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। শুকরাতালে গঙ্গার ধারে প্রায় ৭৫ ফুটের একটি মূর্তি রয়েছে হনুমানের। সেই হনুমান মূর্তি দর্শন করেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সেখানেই ঘোষণা করেন ওই হনুমান মূর্তির জন্য সোনার মুকুট উপহার দেবেন তিনি। যোগীর বজরংবলী প্রেম অবশ্য নতুন কিছু নয়। বিভিন্ন জনসভায় একাধিকবার তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে,”ওদের আলি পছন্দ আর আমাদের বজরংবলী। ওরা আলি নিয়ে থাক, আমরা বজরংবলী নিয়ে থাকি।”যার ওজন হবে অন্তত আড়াই কেজি। তবে, শুধু মন্দির দর্শন নয় ওই জেলায় উন্নয়নের কাজ করারও উদ্যোগ নিয়েছে যোগী সরকার। রবিবার প্রায় ১০ কোটি টাকার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের শিলান্যাস করেন মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: ‘মুসলিমরা পশুর মতো প্রচুর সন্তানের জন্ম দেয়’, বিতর্কিত মন্তব্য বিজেপি বিধায়কের]

বিজেপির হিন্দুত্ববাদের মুখ হিসেবে পরিচিত যোগী। তিনি হনুমানের মূর্তির জন্য এত মূল্যবান বস্তু দান করায় বিরোধীরা প্রশ্ন তুলবেন সেটাই স্বাভাবিক। বিরোধীদের দাবি, হিন্দুত্বের জিগির তুলতেই মন্দিরে গিয়ে কোটি কোটি টাকা দান করছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই টাকায় গরিব মানুষের উন্নয়ন করা যেত বলেও দাবি করছেন বিরোধী শিবিরের কেউ কেউ। উল্লেখ্য, গতবছর রাজস্থানে ভোটপ্রচারে গিয়ে হনুমানকে দলিত বলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন যোগী। তারপর সেই হনুমানের মূর্তির জন্যই মুকুট দান নিয়ে বেশ রসিকতাও হচ্ছে নেটদুনিয়ায়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং