২৮ ভাদ্র  ১৪২৬  রবিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “মুসলিমরা অনেক বিয়ে করে আর পশুর মতো প্রচুর সন্তানের জন্ম দেয়।” সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এই মন্তব্যই করলেন উত্তরপ্রদেশের বালিয়ার বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। গতবছর জুলাই মাসে হিন্দুদের কমপক্ষে পাঁচটি সন্তানের জন্ম দেওয়া উচিত বলে পরামর্শ দিয়ে বিতর্কের সূচনা করেছিলেন। হিন্দুত্ব রক্ষার স্বার্থেই এই উদ্যোগ নেওয়া জরুরি বলে জানিয়েছিলেন। এবার মুসলিমদের বহুবিবাহ ও সন্তান জন্ম দেওয়া নিয়ে কটাক্ষ করে ফের বির্তকের সূত্রপাত করলেন।

[আরও পড়ুন- বিজেপি বিধায়কের জামাইকে অপহরণের চেষ্টা, প্রাণহানির আতঙ্কে কাঁটা স্ত্রী]

রবিবার বালিয়ায় মুসলিম সম্প্রদায়কে নিয়ে কথা বলতে গিয়ে এই বিতর্কিত মন্তব্য করেন সুরেন্দ্র সিং। তিনি বলেন, “আপনারা জানেন মুসলিম ধর্মের মানুষ ৫০ জনকে বিয়ে করে আর ১০৫০টি সন্তানের জন্ম দেয়। এটা কোনও ঐতিহ্য নয়, একটা পাশবিক প্রবণতা। সমাজে দুটো বা চারটি সন্তানের জন্ম দেওয়া স্বাভাবিক। কিন্তু, তার থেকে বেশি সন্তানের জন্ম দেওয়া স্বাভাবিক আচরণের মধ্যে পড়ে না।”

গত ২ তারিখেও ডাক্তারদের ‘শয়তান’ এবং সাংবাদিকদের ‘দালাল’ বলে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন এই বিজেপি বিধায়ক। বালিয়ায় অনুষ্ঠিত চিকিৎসক দিবসের অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, “সরকারি ডাক্তাররা শয়তানের মতো। গরিবদের পরিষেবা দেয় না। সরকারি হাসপাতালে ভরতি থাকা রোগীদের সঙ্গে দরাদরি করতে করতে তারা শয়তানে পরিণত হয়েছে। ভগবানের কাছে আমি প্রার্থনা করি তিনি যেন ওনাদের সুবুদ্ধি দেন।” এরপরই সাংবাদিকদের আক্রমণ করে তিনি বলেন, “সাংবাদিকরা ভাল প্রতিবেদন না ছেপে নিজেদের এলাকায় দালালি করেন। ভগবানই জানেন, এভাবে সমাজকে কী বার্তা দিতে চাইছেন তাঁরা।”

[আরও পড়ুন- ফের কর্ণাটক ইস্যুতে নাটক, ‘নিরাপত্তার অভাবে’ পুলিশকে চিঠি ‘বন্দি’ বিধায়কদের]

এর আগে গতবছরের জুলাই মাসে হিন্দুদের কমপক্ষে পাঁচটি করে সন্তান জন্ম দেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছিলেন সুরেন্দ্র সিং। বলেছিলেন, “প্রত্যেকটি আধ্যাত্মিক গুরুই চান হিন্দুদের যেন কমপক্ষে পাঁচটি করে সন্তান হয়। এর ফলে জনসংখ্যার মধ্যে বৈষম্য নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হবে। আর বজায় থাকবে হিন্দুত্বও।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং