Advertisement
Advertisement
ট্রাম্পের ভারত সফর

আগ্রায় আসবেন সস্ত্রীক ট্রাম্প, যমুনার দুর্গন্ধ ঢাকতে নদীতে ছাড়া হল ৫০০ কিউসেক জল

দূষণমুক্ত যমুনা দেখে তুষ্ট হবেন ট্রাম্প?

UP releases water in Yamuna ahead of Trump's visit
Published by: Sucheta Chakrabarty
  • Posted:February 19, 2020 4:10 pm
  • Updated:September 12, 2023 3:33 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চলতি মাসেই ভারত সফরে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump)। তার আগেই সাজ সাজ রব দেশজুড়ে। বিশ্বের আয়নায় নিজের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে কোনও ক্রুটি রাখেন না প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ট্রাম্পকে তুষ্ট করতে সদা সর্বদাই সতর্ক দৃষ্টি দিচ্ছে মোদি সরকার। ২ দিনের সফরে ট্রাম্প আসার আগে তাই যমুনার ‘স্বাস্থ্য’ স্বচ্ছ করতে উদ্যোগ নেয় উত্তরপ্রদেশ সেচ দপ্তর। আগ্রার যমুনায় প্রায় ৫০০ কিউসেক জল ছাড়া হয়।এই দুদিনের সফরে ট্রাম্প প্রথমে গুজরাটের আহমেদাবাদ ও পরে দিল্লি যাবেন। সেখান থেকে আগ্রায় তাজমহল দেখতে যেতে পারেন সস্ত্রীক মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

সেচ দপ্তরের সুপারিনটেন্ডেন্ট ধর্মেন্দ্র সিং ফোগাট জানান, ট্রাম্পের দিল্লি সফরের কথা মাথায় রেখেই যমুনার স্বাস্থ্য পুনরুদ্ধার করতে গঙ্গানাগার থেকে যমুনায় ৫০০ কিউসেক জল ছাড়া হয়। ২০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তা মথুরা (Mathura) ও ২১ ফেব্রুয়ারি দুপুরের মধ্যেই সেই জল আগ্রার যমুনায় পৌঁছবে। রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের ইঞ্জিনিয়ার অরবিন্দ কুমার জানান, যমুনায় এই ৫০০ কিউসেক জল পৌঁছলে তা মথুরা ও আগ্রার যমুনার জমা জলের দুর্গন্ধ দূর করবে। জলের মধ্যে অক্সিজেনের পরিমাণ বৃদ্ধি করবে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: মার্কিন-তালিবান চুক্তি নিয়ে উদ্বিগ্ন ভারত, ট্রাম্পের কাছে ‘জবাব’ চাইবে দিল্লি!]

অন্যদিকে, ভারতের সঙ্গে এখনই কোনও বড় বাণিজ্যিক চুক্তি স্বাক্ষর করতে রাজি নন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বুধবার তিনি জানান, ভারতের থেকে বাণিজ্য সংক্রান্ত কোনও সঠিক উত্তর না পাওয়ায় এখনই কোনও চুক্তি নয়। তবে আমি মোদিকে ভীষণ পছন্দ করি।’ ট্রাম্পের তুষ্টিকরণে কয়েকদিন আগেই ট্রাম্পের যাত্রাপথে থাকা বিভিন্ন বসতি খালি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কোথাও আবার পাঁচিল দিয়ে আলাদা করে দেওয়া হয়েছে। তবে তা নিয়েও শুরু হয়েছে বিতর্ক।

Advertisement

এর মাঝেই আমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামের কাছে একটি বস্তিতে থাকা ৪৫টি পরিবারকে দ্রুত জায়গা খালি করার নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় পৌরনিগম। যা নিয়েও নতুন করে বিতর্ক তৈরি হয়েছে।এর ফলে ওই পরিবারগুলির ২০০ জন মানুষকে গৃহহীন হতে হবে। যা নিয়ে যথেষ্ট বিতর্ক তৈরি হয়ে স্থানীয় মহলে। যদিও ওই পরিবারগুলি সরকারি জমি জোর করে দখল করেছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে আমেদাবাদ পৌরনিগমের তরফে। তাই তাদের জমি খালি করার নোটিস ধরানো হয়েছে। যার সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সফরের কোনও যোগ নেই।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ