BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভুলের মাশুল! জোর করে জীবাণুনাশক খাইয়ে খুন উত্তরপ্রদেশের সাফাইকর্মীকে

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: April 19, 2020 5:36 pm|    Updated: April 19, 2020 5:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জোর করে সাফাইকর্মীকে (Sanitisation Worker) জীবাণুনাশক খাওয়ানোর অভিযোগ উঠেছে উত্তরপ্রদেশের রামপুরে। হাসপাতালে নিয়ে এলে মারা যান সাফাইকর্মী। সাফাইয়ের কাজে গিয়ে অসাবধানতাবশত এক ব্যাক্তির পায়ে জীবাণুনাশক দিয়ে ফেলায় রেগে যান সেই ব্যক্তি। ফলে প্রতিশোধ নিতে সাফাইকর্মীকে জীবাণুনাশক খাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

উত্তরপ্রদেশের রামপুর জেলার মোতিপুরা গ্রামের বাসিন্দা কুনওয়ার পল। পেশায় সাফাই কর্মী কুনওয়ার ১৪ এপ্রিল এলাকা সাফাইয়ের কাজে গিয়ে বিপত্তিতে পড়েন। সংক্রমণ রোধে এলাকায় জীবাণুনাশক ছড়ানোর সময় অসাবধানতাবশত এই গ্রামেরই এক স্থানীয় ইন্দ্রপলের পায়ে সেই রাসায়নিক গিয়ে পড়ে। প্রথমে বচসা পরে তা প্রাণহানির পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছয়। অভিযোগ, ইন্দ্রপল এবং তাঁর অনুগামীরা ওই সাফাইকর্মীর মুখে জোর করে স্যানিটাইজিং মেশিনের পাইপটা ঢুকিয়ে দেন। এরপর কিছুক্ষণ পর সাফাইকর্মীকে কয়েকজন স্থানীয়রা নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যান। পরবর্তীকালে কুনওয়ারের অবস্থার অবনতি হলে ১৭ এপ্রিল তাঁকে রামপুরের হাসপাতাল থেকে মোরাদাবাদের টিএমইউ মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, চিকিৎসা চলাকালীনই মৃত্যু হয়েছে কুনওয়ারের। ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় ইন্দ্রপল ও তাঁর অনুগামীদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু হয়। তবে এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করেনি যোগী আদিত্যনাথের পুলিশ। যদিও উত্তরপ্রদেশের পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে এই ঘটনায় মোট পাঁচজনের বিরুদ্ধে এফআইআর-ও দায়ের হয়েছে।

[আরও পড়ুন:PM-CARESএ অনুদানের বিজ্ঞপ্তি, চরম অসন্তোষ দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার শ্রমিকদের]

লকডাউনের প্রথম ও দ্বিতীয় পর্বে প্রধানমন্ত্রী-সহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সকলেই স্বাস্থ্যকর্মী, চিকিৎসক, পুলিশ, সংবাদ কর্মীদের সম্মান করার আবেদন জানান। তবুও হুঁশ ফিরছে না দেশের কিছু মানুষের। স্বাস্থ্যকর্মীদের এই কাজকে তাঁরা লঘু করে দেখার পাশাপাশি মানবিকতাটুকুও বাদ দিয়ে দিয়েছেন নিজেদের মধ্যে থেকে। ফলত প্রাণ হারালেন এক সাফাইকর্মী।

[আরও পড়ুন:নিশানায় মুসলিমরা! করোনা আতঙ্কের মধ্যেও বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement