BREAKING NEWS

১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  রবিবার ২৯ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সরষের মধ্যেই ভূত! গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের সঙ্গে যোগসাজশ ছিল ৫০ পুলিশ কর্মীর, দাবি SIT-এর

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 5, 2020 3:13 pm|    Updated: November 5, 2020 3:13 pm

An Images

ঘটনাস্থলের ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সরষের মধ্যেই লুকিয়েছিল ভূত। কানপুরের কুখ্যাত গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের (Vikas Dubey) সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ ছিল কমপক্ষে ৫০ জন পুলিশ কর্মী-আধিকারিকের। যারা তাকে পুলিশের অন্দরমহলের খবর পাচার করত। তদন্ত শেষে জমা করা রিপোর্টে এমনটাই জানিয়েছে SIT।

৩২০০ পাতার রিপোর্ট জমা করেছে সিট। তার মধ্যে ৭০০ পাতা জুড়ে উত্তরপ্রদেশের (UP) পুলিশের একাংশ ও গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের যোগসাজশের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। সিট জানিয়েছে, এক-দুদিন নয়, দীর্ঘদিন ধরেই এই যোগসাজশ চলছিল। যার দরুণ বিকাশের বিরুদ্ধে পুলিশ স্টেশনে কী পদক্ষেপ করা হচ্ছে, তা আগেভাগেই খবর পেয়ে যেত সে।

[আরও পড়ুন : এক হাজারে হুমকি, ৫৫ হাজারে খুন! যোগীর রাজ্যে অপরাধের ‘রেট চার্ট’ ফাঁস ইন্টারনেটে]

৩ জুলাইয়ের অভিযানের খবর কীভাবে বিকাশ ও তার গ্যাং আগেভাগে পেয়ে গিয়েছিল, তাও ব্যাখ্যা করা হয়েছে সিটের রিপোর্টে। পুলিশ অভিযানের খবর পেয়ে সতর্ক হয়ে যায় বিকাশ। গ্যাংয়ের বাকিদের নির্দেশ দেয় যাতে একজন পুলিশ কর্মীও বেঁচে ফিরতে না পারে। সেদিন বিকাশের গ্যাংয়ের গুলিতে ঝাঁজরা হয়ে গিয়েছিলেন ডিএসপি দেবেন্দ্র মিশ্র-সহ আট পুলিশ কর্মী। বিকাশের সঙ্গে যোগসাজশ করা ৫০ পুলিশ কর্মী ও অফিসারদের উত্তরপ্রদেশে পুলিশ বাহিনী থেকে বরখাস্ত করা হবে বলে সূত্রের খবর। এই যোগসাজসের অভিযোগ ইতিমধ্যে কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধের অভিযোগও সত্য প্রমাণ হয়েছে বলে খবর।

সিট এই রিপোর্ট তৈরির আগে ১০০ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে বলে খবর। তাঁদের মধ্যে পুলিশ কর্মী ছাড়াও বিকরু গ্রামের বাসিন্দা, অন্যান্য জেলার পুলিশ আধিকারিক এবং কানপুরের একাধিক ব্যবসায়ীও রয়েছেন। তদন্তে গুরুত্বপূর্ণ ন’টি দিক উঠে এসেছে। উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই এই রিপোর্ট জমা দেওয়ার দিন নির্ধারিত হলেও তদন্তের স্বার্তে সেই সময়সীমা বাড়ানো হয়।

[আরও পড়ুন : কাশ্মীরে এবার সেনার টার্গেট সাত শীর্ষ জঙ্গি নেতা! তৈরি নিকেশের ছক]

৬৪টি মামলার আসামীকে ধরতে গিয়ে গুলিতে ঝাঁজরা হয়ে গিয়েছিল যোগী রাজ্যের আট পুলিশ কর্মী। এরপর থেকে হন্যে হয়ে তাকে খুঁজছিল পুলিশ। শেষপর্যন্ত মধ্যপ্রদেশের উজ্জয়িনীর মহাকাল মন্দির থেকে গ্রেপ্তার হয় ডন বিকাশ দুবে । কিন্ত কানপুর এসে পৌঁছয়নি সে। তার আগেই পুলিশের গাড়ির দুর্ঘটনার সুয়োগ নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে বিকাশ। আটকাতে গেলে পুলিশ কর্মীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে থাকে সে। পুলিশের ছোঁড়া পালটা পালটা গুলিতে বিকাশ দুবে খতম হয়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement