BREAKING NEWS

১৬ আষাঢ়  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

লখনউয়ে প্রকাশ্যে শুটআউট, সাতসকালে খুন বিশ্ব হিন্দু মহাসভার রাজ্য সভাপতি

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 2, 2020 10:32 am|    Updated: February 2, 2020 11:05 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রবিবার ভোরে প্রকাশ্যে গুলি করে খুন করা হল বিশ্ব হিন্দু মহাসভার এক নেতাকে। আর ঘটনাটি ঘটল সেই উত্তরপ্রদেশের রাজধানী লখনউতেই। কয়েকমাস আগে যেখানে নৃংশসভাবে খুন হতে হয়েছিল আরেক হিন্দুত্ববাদী নেতা কমলেশ সিংকে। আজ যিনি খুন হয়েছেন তাঁর নাম রঞ্জিত বচ্চন বলে জানা গিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে লখনউয়ের হজরতগঞ্জের সিটি সেন্টার এলাকায়। সাতসকালে শহরের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় এই ঘটনা ঘটায় প্রবল উত্তেজনার সূষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার ভোরে লখনউয়ের হজরতগঞ্জ এলাকায় মর্নিং ওয়াক করতে বেরিয়েছিলেন বিশ্ব হিন্দু মহাসভার রাজ্য সভাপতি রঞ্জিত বচ্চন।  হজরতগঞ্জের সিটি সেন্টারের সামনে অবস্থিত CDRI বিল্ডিংয়ের কাছে রাস্তায় পায়চারি করছিলেন। হঠাৎ বাইক নিয়ে কয়েকজন অজ্ঞাত পরিচয়ের দুষ্কৃতী তাঁর সামনে চলে আসে। তারপর আচমকা রঞ্জিত বচ্চনকে লক্ষ্য করে একাধিক গুলি চালায়। এর জেরে ঘটনাস্থলেই রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়েন তিনি। কিছুক্ষণ পরে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়। দুষ্কৃতীদের গুলিতে মারাত্মক জখম হন সঙ্গে তাঁর ভাইও। স্থানীয় লোকজন তাঁকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় ট্রমা সেন্টারে ভরতি করেন। বর্তমানে তাঁর শারীরিক অবস্থা সঙ্গীন বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: সংক্রমণের ভয়, দিল্লিগামী বিমানে ৬ ভারতীয়কে উঠতে দিল না চিন]

 

পুলিশ সূত্রে খবর, আদতে উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের বাসিন্দা রঞ্জিত বচ্চন কট্টর হিন্দুত্ববাদী নেতা হিসেবেই পরিচিত ছিলেন। সাতসকালে তাঁকে এইভাবে প্রকাশ্যে গুলি করে  খুনের ঘটনায় এলাকায় প্রবল উত্তেজনা ছড়িয়েছে। অজ্ঞাত পরিচয়ের ওই দুষ্কৃতীদের সন্ধানে সব জায়গায় তল্লাশি চালানো হচ্ছে। মৃতের পরিচিতদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

[আরও পড়ুন: আর ১৮ নয়, এবার বাড়তে পারে মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স! ইঙ্গিত নির্মলার]

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই লখনউতেই গত কয়েকমাস আগে নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছিল আরেক হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের নেতা কমলেশ সিং। তাঁর অফিসের মধ্যে কুপিয়ে ও গুলি করে খুন করেছিল দুষ্কৃতীরা। পরে তাদের গুজরাট ও উত্তরপ্রদেশ থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement