BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এবার তো কন্ডোমও চাইবে! ছাত্রী সস্তায় স্যানিটারি ন্যাপকিন চাইতেই ফুঁসে উঠলেন আমলা

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: September 28, 2022 9:16 pm|    Updated: September 28, 2022 9:21 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘কন্যা ক্ষমতায়ন, সমৃদ্ধ বিহার’ প্রকল্পের নাম। সেই প্রকল্পের কর্মশালায় মেয়েদের সুবিধা-অসুবিধা জানতে ছাত্রীদের সঙ্গে বসেছিলেন রাজ্যের মহিলা ও শিশু উন্নয়ন নিগমের প্রধানের (Women and Child Development Corporatio) শীর্ষ আমলা। সেখানেই নবম-দশম শ্রেণির এক ছাত্রী জানতে চেয়েছিলেন, “সরকার কি বিশ-ত্রিশ টাকায় স্যানিটারি ন্যাপকিনের প্যাকেট দিতে পারে?” উত্তরে আমলা ঝাঁঝিয়ে ওঠেন। বলেন, “এরপর তো তোমরা সরকারের কাছে কন্ডোমও চেয়ে বসবে!” এই কথোপকথনের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ছাত্রীর প্রশ্নে ওই মহিলা আধিকারিকের প্রতিক্রিয়ার নিন্দা শুরু হয়েছে।

নারী কল্যানে বিহার সরকারের (Bihar Government) প্রকল্পের নাম ‘সশক্ত বেটি সমৃদ্ধ বিহার’ বা ‘কন্যা ক্ষমতায়ন সমৃদ্ধ বিহার’। একটি বস্তিতে চলছলি প্রকল্পের কর্মশালা। সেখানেই বিহারের মহিলা ও শিশু কল্যাণ নিগমের চেয়ারম্যান তথা আইএএস (IAS) আধিকারিক হরজোৎ কউর ব্রহ্ম এক ছাত্রীর প্রশ্নে চমকে দেওয়া উত্তর দেন। সরকার সস্তায় স্যানিটারি ন্যাপকিনের প্যাকেট দেবে কিনা, এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “এরপর বলবে সরকার জিনস দিতে পারে, সুন্দর জুতোও তো দিতে পারে!” এখানেই না থেমে হরজোৎ বলেন, “এরপর তোমরা আশা করবে যে সরকার পরিবার পরিকল্পনার জন্য কন্ডোমও দেবে।”

[আরও পড়ুন: ৯ মাসের অপেক্ষার অবসান, বিপিন রাওয়াতের জায়গায় নতুন সেনা সর্বাধিনায়কের নাম ঘোষণা কেন্দ্রের]

মহিলা ও শিশু উন্নয়ন নিগমের প্রধানের এমন উত্তরে ঘাবড়ানি ছাত্রী। সে জানিয়ে দেয়, জনতার ভোটে সরকার তৈরি হয়। তাতে বিরক্তি বাড়ে আমলার। তিনি বলেন, “এটা চরম বোকার মতো কথা! তা হলে ভোট দিও না। পাকিস্তানে (Pakistan) যাও। তোমরা কি শুধু টাকা আর পরিষেবার জন্য ভোট দাও?” একথা শুনে ছাত্রীরা চুপ থাকেনি। তারাও উত্তর দেয়, “আমরা ভারতীয়। পাকিস্তানে যাব কেন!”

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশে দুর্ঘটনায় মৃত ৮, নিহতদের পরিবারকে দু’লক্ষ টাকা সাহায্য মোদির]

এরপর অবশ্য মহিলা বুঝতে পারেন যে তিনি বাড়বাড়ি বলে ফেলেছেন। কথা ঘোরাতে বলেন, “আমরা সবকিছু সরকারের কাছে চাইব কেন? এই মানসিকতা ঠিক না। নিজের পায়ে দাঁড়াতে হবে।” যদিও যখন এক ছাত্রী অভিযোগ করে, স্কুলে মেয়েদের টয়লেট ভাঙা, সেখানে ছেলেরাও ঢুকে পড়ে। তা শুনে আমলা জবাব দেন, “তোমাদের বাড়িতে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য আলাদা টয়লেট রয়েছে?”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে