BREAKING NEWS

১৬ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শনিবার ৩০ মে ২০২০ 

Advertisement

অভিনন্দনকে ফিরতে বলেছিলেন যুদ্ধবিমান কন্ট্রোলার মিন্টি

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: August 16, 2019 9:42 am|    Updated: May 19, 2020 10:28 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত-পাক যুদ্ধের আবহে পাকিস্তানের হাতে বন্দি হয়েও বুদ্ধিভ্রষ্ট হননি ভারতীয় বায়ু সেনার উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। বরং অত্যন্ত সুচারুভাবে সামলেছিলেন গোটা পরিস্থিতি। বৃহস্পতিবার দেশের ৭৩তম স্বাধীনতা দিবসে তাই ‘বীর চক্র’ সম্মানে ভূষিত করা হল অভিনন্দন বর্তমানকে। তবে পাকিস্তানের নৃশংস অত্যাচারের একটুও তাঁকে সহ্য করতে হত না যদি সেদিন তিনি যুদ্ধবিমান কন্ট্রোলারদের সতর্ক বার্তা ঠিক সময়ে শুনতে পেতেন।

[আরও পড়ুন: ‘বর্ডার’ ছবির গান গেয়ে সেলিব্রিটি জওয়ান! ভিডিও শেয়ার করে প্রশংসা কিরেণ রিজিজুর]

অভিনন্দনের বিমানকে গুলি করে পাকিস্তানে নামানোর ঠিক আগেই তাকে ফিরে আসতে বলে সতর্ক করেছিলেন ভারতীয় বিমান বাহিনীর এক মহিলা ফাইটার জেট কন্ট্রোলার, নাম মিন্টি আগরওয়াল। বৃহস্পতিবার স্বাধীনতা দিবসে সম্মানিত করা হল তাঁকেও। ফাইটারজেট কন্ট্রোলার মিন্টি জানিয়েছেন, অভিনন্দনের মিগ ২১ যুদ্ধবিমানটিকে আকাশপথের পরিস্থিতি জানিয়ে সাহায্য করছিলেন তিনিই। অভিনন্দনের বিমানে পাক হামলার কয়েক মিনিট আগেই তিনি বুঝতে পারেন পরিস্থিতি। শত্রু বিমানের উপস্থিতি টের পান। সঙ্গে সঙ্গেই অভিনন্দনকে ফিরে আসতে বলেছিলেন তিনি। কিন্তু, পাকিস্তানের বায়ুসেনা তাঁদের যোগাযোগ ব্যবস্থা জ্যাম করে দেওয়ায় কন্ট্রোলারদের সেই নির্দেশ শুনতে পাননি অভিনন্দন। তবু জটিল যুদ্ধ পরিস্থিতিতে তিনি যে তৎপরতা দেখিয়েছেন তাকেই স্বীকৃতি দিল কেন্দ্র। স্বাধীনতা দিবসে তাই মিন্টি আগরওয়ালকে বিশেষ যুদ্ধসেবা মেডেল দিয়ে সম্মানিত করা হল। এই মেডেল সাধারণত যুদ্ধক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালনের জন্য দেওয়া হয়। ফল না পেলেও দায়িত্বপালনে নিজের ১০০ শতাংশই দিয়েছিলেন মিন্টি। বালাকোট হামলার ঠিক পরেরদিন, ২৭ ফেব্রুয়ারি সকাল দশটায় ভারতকে পাল্টা আক্রমণ করতে ২৪টি পাকিস্তানি ফাইটার জেট ভারতীয় আকাশসীমা অতিক্রম করে।

এদিকে, স্বাধীনতা দিবসের দিনও সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে গুলি ছুঁড়ে পাকিস্তান। পালটা জবাবে তিন পাক সেনাকে খতম করে ভারতীয় জওয়ানরা। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটে জম্মু ও কাশ্মীরের উরি ও রাজৌরি সেক্টরে। খতম হওয়া তিন পাকিস্তানি সেনার নাম নায়েক তনভীর, সিপাই রমজান ও ল্যান্স নায়েক তৈমুর। অন্যদিকে তাদের গুলিতেও পাঁচজন ভারতীয় জওয়ান মারা গিয়েছেন বলে দাবি করেছে পাকিস্তান। যদিও সেই দাবিকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে ভারতের তরফে।

[আরও পড়ুন: রাতের অন্ধকারে মার্কিন সীমান্তে উড়ল রুশ আণবিক অস্ত্রবাহী যুদ্ধবিমান]

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement