৪ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আদিবাসী মহিলাদের হেনস্তা করলে কিংবা তাঁদের উপর অত্যাচার চালালে সেই সমস্ত মুসলিম সম্প্রদায়ের ব্যক্তিদের মুণ্ডচ্ছেদ করা হবে। এভাবেই কড়া ভাষায় হুমকি দিয়ে বিতর্কে জড়ালেন বিজেপি সাংসদ সোয়াম বাপু রাও।

লোকসভা নির্বাচন পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সময়ে রাজ্য-রাজনীতিতে তাৎপর্যপূর্ণভাবে পরিবর্তন ঘটেছে। বিপুল পরিমাণ ভোটে জিতে কেন্দ্রে ক্ষমতায় ফিরেছে বিজেপি। কোথাও আবার উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে গেরুয়া শিবিরের আসন সংখ্যা। ক্ষমতার শিখরে চড়ায় গলার স্বরও দ্বিগুণ হয়েছে অনেক বিজেপি নেতা-মন্ত্রীর। তাই তো যোগদিবসে সরকারি কর্মীকে দিয়ে জুতো ফিতে বাঁধিয়ে সম্প্রতি বিতর্কে জড়িয়েছিলেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপির মন্ত্রী লক্ষ্মী নারায়ণ। এবার প্রকাশ্যেই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষদের মুণ্ডচ্ছেদের হুমকি দিলেন তেলেঙ্গানার আদিলাবাদের বিজেপি সাংসদ সোয়াম বাপু। তাঁর কথায়, এলাকার আদিবাসী মহিলাদের অকারণে হেনস্তা করে মুসলিম যুবকরা। এমনটা হলে শাস্তিস্বরূপ তাদের মাথা থেকে ধর আলাদা করে দেওয়া হবে। অর্থাৎ প্রকাশ্যে রীতিমতো খুনের হুমকিই দিয়ে রাখলেন সাংসদ। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্ক দানা বেঁধেছে।

[আরও পড়ুন: খরার জেরে রাজ্যজুড়ে হাহাকার, অথচ জলকর মেটাননি খোদ মুখ্যমন্ত্রী]

সংখ্যালঘু নেতারা সোয়াম বাপুর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগও জানিয়েছেন। কংগ্রেসের সংখ্যালঘু সেলের জেলা সভাপতি সাজিদ খান ও আদিলাবাদ এএসপি কাঞ্চা মোহন অভিযোগ দায়ের করেন। তাঁদের দাবি, এমন বিতর্কিত মন্তব্য সোয়াপ বাপু রাওকে ফিরিয়ে নিতে হবে। সাজিদ খানের মতে, একজন সাংসদ হয়ে এধরনের মন্তব্য তাঁর মুখে মানায় না। এতে গোটা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে অপমান করা হয়েছে। ইচ্ছাকৃতভাবে শুধু তাদেরই টার্গেট করা হচ্ছে। বাপুর মন্তব্য তুলে ধরে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেই আক্রমণ করেন তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতির এম কৃষ্ণক। তিনি বলেন, “মোদি মুখে বলছেন, সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস। অথচ তাঁর নিজের দলের সাংসদই প্রকাশ্যে এধরনের মন্তব্য করছেন।”

তবে এই প্রথমবার নয়। এর আগেও মুসলিমদের টার্গেট করে শিরোনামে এসেছেন বিজেপি সাংসদ। গতবছর আম্বেদকরনগরের বিজেপি সাংসদ হরি ওম পাণ্ডে বলেছিলেন, দেশে মুসলিমদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে বলেই ধর্ষণ ও খুনের ঘটনা বাড়ছে। এমন বিস্ফোরক মন্তব্যে বিতর্কের ঝড় উঠেছিল।

[আরও পড়ুন: বন্ধ চিকিৎসা, বিহারের এনসেফালাইটিস প্রবণ এলাকার হাসপাতালগুলি যেন গোশালা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং