১৭  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ৮ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

টানেল খোঁড়ার সময়ে বউবাজারে ভেঙে পড়ল ২টি বাড়ি, দায় নিল মেট্রো কর্তৃপক্ষ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 1, 2019 3:45 pm|    Updated: September 1, 2019 4:53 pm

2 houses collapsed at Bow Bazar for work of boring in metro tunnel

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আশঙ্কা ছিলই সকাল থেকে। ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর জন্য টানেলের বোরিংয়ের কাজ চলাকালীন উত্তর কলকাতার বউবাজার এলাকার পুরনো বাড়িগুলিতে ফাটল দেখেই আতঙ্ক বাড়ছিল। দুপুরের পর সেই আশঙ্কা সত্যি করেই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল বউবাজার এলাকার দুটি বাড়ি। যদিও হতাহতের খবর মেলেনি এখনও পর্যন্ত। তবে বড় বিপর্যয় এড়াতে এলাকা একেবারে খালি করে দেওয়া হচ্ছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। বিপর্যয় মোকাবিলা দলও ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছে।

[আরও পড়ুন: প্রবল বানে ভাঙল আহিরীটোলা জেটি ঘাট, জখম ২]

দিন কয়েক ধরেই ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজের জন্য টানেল খোঁড়ার কাজ চলছে। তার জেরে কলকাতা পুরসভার ৪৮ নং ওয়ার্ড এলাকায় ভেঙে পড়ে চাঙড়৷ শনিবার রাত থেকেই এনিয়ে বউবাজার এলাকার দুর্গা প্রিটোরিয়া লেন ও স্যাঁকরা পাড়ার বাসিন্দারা আতঙ্কে ভুগছিলেন। রবিবার সকালে কাজ চলাকালীন ওই এলাকায় প্রচণ্ড শব্দে বারবারই কেঁপে উঠছিলেন বাসিন্দারা। পুরনো বাড়ি ভেঙে পড়ার আশঙ্কাও
বাড়েছিল। শেষমেশ তাইই হল। দুর্গা প্রিটোরিয়া স্ট্রিটের দুটি বাড়ি ভেঙে পড়ে।

hosuse-collapse

ঘটনার পরই তৎপর হয়ে ওঠেন কলকাতা পুরসভার মেয়র। খবর পেয়ে তিনি মেট্রো কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। পরিস্থিতি দেখে মেট্রো কর্তারা মেনে নেন যে টানেল বোরিংয়ের কাজের জন্যেই বাড়ি ভেঙে পড়েছে। আর তা বুঝেই টানেল খোঁড়ার কাজ আপাতত স্থগিত করল মেট্রো কর্তৃপক্ষ। সেইসঙ্গে মেয়র তাঁদের কাছ থেকে এই প্রতিশ্রুতিও আদায় করে নেন যে ভেঙে পড়া বাড়িগুলি মেরামত করে নেওয়ার
দায়িত্ব নেবে মেট্রো রেল। এই বৈঠকের পর দুর্গা প্রিটোরিয়া স্ট্রিটের ভেঙে পড়া বাড়ি পরিদর্শনে সেখানে যান ফিরহাদ হাকিম। বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের আশ্বাস দেন।

hosuse-collapse

পরিস্থিতি সামাল দিতে পুরসভা কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। গোটা বিষয়টির জন্য মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষের উপর দায় চাপিয়ে উত্তর কলকাতার সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর আরও অভিযোগ, এলাকাবাসীকে আগাম নোটিস না দিয়েই টানেল খোঁড়ার কাজ শুরু করেছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এই অভিযোগ অস্বীকার করে মেট্রোর তরফে দাবি, আগে থেকেই তাঁরা বাসিন্দাদের সতর্ক করা হয়েছিল। তবে এদিন বাড়ি ভেঙে পড়ার ঘটনার পর ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর থমকে যাওয়া কাজ ফের কবে শুরু হবে, তা নিয়ে সংশয় তৈরি হচ্ছে।

ছবি: পিন্টু প্রধান।

[আরও পড়ুন: ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজের জেরে কেঁপে উঠল বউবাজার, একাধিক বাড়িতে ফাটল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে