Advertisement
Advertisement
Adhir Ranjan Chowdhury

মমতাকে ‘পালটিকুমারী’ বলে খোঁচা, হারলে রাজনীতি থেকে ‘ছুটি’ ঘোষণা অধীরের

রবিবার কলকাতার প্রেস ক্লাবে তাই যৌথ সাংবাদিক সম্মেলন করলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী ও বিমান বসু। সেখান থেকে একযোগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, নীতীশ কুমারকে আক্রমণ করলেন বহরমপুরের কংগ্রেস প্রার্থী।

2024 Lok Sabha Polls: Adhir Ranjan Chowdhury pledges to leave politics if loses
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:April 21, 2024 6:03 pm
  • Updated:April 21, 2024 6:37 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ষষ্ঠবার সাংসদ হওয়ার লক্ষ্যে চব্বিশের লোকসভা ভোটে ফের বহরমপুর থেকে কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন অধীররঞ্জন চৌধুরী। সেই আসনে তাঁকে সমর্থন করেছে বামফ্রন্ট। রবিবার কলকাতার প্রেস ক্লাবে তাই যৌথ সাংবাদিক সম্মেলন করলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী ও বিমান বসু। আর সেখান থেকেই একযোগে আক্রমণ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, নীতীশ কুমারকে। এও জানালেন, বহরমপুর থেকে এবার হারলে রাজনীতি থেকে ছুটি নিয়ে নেবেন।

প্রেস ক্লাবে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে অধীর চৌধুরী, বিমান বসু। ছবি: শুভাশিস রায়।

লোকসভা ভোটের (2024 Lok Sabha Polls) আগে আচমকাই দলবদল করে এনডিএ শিবিরে যোগ দিয়েছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার (Nitish Kumar)। অবশ্য জেডিইউ সুপ্রিমোর এই দলবদলের ‘খ্যাতি’ আছেই। হাওয়া বুঝে সমঝোতা এবং বিদ্রোহ – দুইই করে থাকেন তিনি। রবিবার কলকাতায় সাংবাদিক বৈঠক করে সেই নীতীশ কুমারের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) এক সারিতে বসালেন অধীররঞ্জন চৌধুরী (Adhir Ranjan Chowdhury)। বললেন, ”আমি একটা ছোট্ট প্রশ্ন করি। কী এমন ঘটল যে জোটের নামকরণ করেছেন বলে গর্ব করার পরও হঠাৎ পাল্টি খেলেন মমতা? বিহারে নীতীশ কুমার যেমন পল্টুকুমার হলেন, আপনি কেন পাল্টিকুমারী হলেন, জানতে চাই। আপনি বলেছিলেন, INDIA জোটই বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করতে পারে, নামকরণও আপনি করেছিলেন। তাহলে পালালেন কেন বলুন।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: পরীক্ষায় ফেল করায় মনখারাপ, CA হওয়ার স্বপ্ন অপূর্ণ রেখেই আত্মঘাতী কসবার ছাত্রী]

বহরমপুরে (Baharampur) নিজের কেন্দ্রে প্রচারে নেমে বারবার বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন অধীর চৌধুরী। তবে কি এবার জনসমর্থন তাঁর পক্ষে নেই? নিজের গড়েই দুর্বল হয়ে পড়ছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের অধীর একেবারে চ্যালেঞ্জের সুরে জানালেন, ‘‘বহরমপুরে আমি হারলে রাজনীতি থেকে ছুট্টি নিয়ে নেব। এত বড় কথা বলে দিলাম আজকে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কি চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে বলতে পারবেন যে, বহরমপুর জিতলে তাঁর জয় হবে কিংবা হারলে তাঁর হার হবে?’’ 

Advertisement

[আরও পড়ুন: গরমে ৫০ বছরের রেকর্ড ভাঙল কলকাতা, আগামী সপ্তাহতেও চলবে তাপপ্রবাহ]

অতীত বলছে, বাম-কংগ্রেস জোটে বামেদের প্রাপ্তির ঝুলি অনেকটাই খালি। বরং কংগ্রেসের ভোট বেড়েছে। এদিনের যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসুকে প্রশ্ন করা হয়, চব্বিশের ভোটে বামেদের ফলাফল কেমন হবে বলে আশা করেন তিনি? তার জবাবে ফ্রন্ট চেয়ারম্যান বলেন, ‘‘আমি প্রত্যাশা করব এবার কংগ্রেসের ভোট বামেদের দিকে আসবে।’’ তাঁর আরও বক্তব্য, ‘‘আগে হয়নি মানে এবারও হবে না, তার কোনও মানে নেই। আমিও তো আগে কখনও অধীরের পাশে বসে সাংবাদিক সম্মেলন করিনি। আজ করছি।’’ অর্থাৎ ‘জগাখিচুড়ি’ জোটে বামেরাও ভোটপ্রাপ্তির আশা করছে, তা স্পষ্ট। 

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ