BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

সিনেমায় বন্যপ্রাণ ও পরিবেশ ভাবনা, শহরে অন্য স্বাদের চলচ্চিত্র উৎসব

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 15, 2017 10:01 am|    Updated: September 19, 2019 2:38 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পরিবেশ ও বন্যপ্রাণ সচেতনতা এই মুহূর্তে সারা বিশ্বে অত্যন্ত চর্চিত বিষয়। সেমিনারে সেমিনারে তা নিয়ে নানা আলোচনা। কোনদিকে এগোচ্ছে পৃথিবী? আগামী প্রজন্মের জন্য কোন প্রকৃতি ও পরিবেশকে রেখে যাচ্ছে মানুষ? সত্যিই কি ডুমস ডে ঘনিয়ে আসছে? এরকম হাজারও প্রশ্নের খোঁজে দিস্তে দিস্তে আলোচনার থিসিস জমা হচ্ছে। তবে সিনেমা নিজগুণে এই সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে পারে বহুগুণে। উসকে দিতে পারে ভাবনার সলতে। শহরে শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ‘কলকাতা ইন্ট্যারন্যাশনাল ওয়াইল্ডলাইফ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট ফেস্টিভ্যাল’। তৃতীয় বছরে পা রাখল এই উৎসব।

[ চিড়িয়াখানায় আর পিকনিক নয়, বন্ধ বাইরে থেকে জল নিয়ে ঢোকাও ]

God on leash (Student Film) (1)

পরিবেশ ভাবনার প্রসার যে বিভিন্ন দেশে কতখানি তাই-ই ধরা পড়বে এই উৎসবে। প্রায় ১১৬টি দেশের ছবি থেকে নির্বাচন করেছেন নির্বাচকরা। প্রদর্শিত হবে ৬৬টি সিনেমা। যার মধ্যে ১২টি তথ্যচিত্র, ১৫টি অ্যানিমেশন ছবি। আছে ছ’টি ফিচার ফিল্মও। এই পৃথিবীর প্রতি, প্রকৃতির প্রতি সৃষ্টিশীল মানুষরা যে কতটা সংবেদনশীল, কোন ভাবনায় তাঁরা দেখছেন পৃথিবীকে তাই উঠে আসবে এই চলচ্চিত্রগুলিতে, জানাচ্ছেন এই উৎসবের ডিরেক্টর আদিত্য মুখোপাধ্যায়। উৎসবের উদ্বোধনে ম্যাগসাইসাই পুরস্কারে ভূষিত পরিবেশবিদ ডাঃ প্রকাশ বাবা আমতে ও ডাঃ মন্দাকিনি আমতের হাত ধরে। সন্ধ্যা রায়, চিরঞ্জিৎ চক্রবর্তী, শতাব্দী রায়দের উপস্থিতিতেই তৃতীয় বর্ষের যাত্রা শুরু উৎসবের।

শহরের রাজপথ সাজবে রঙিন আলপনায়, পুরসভার বেনজির উদ্যোগ ]

The Children of Genghis (Feature Film)

সানি এলে গণ আত্মহত্যা, বর্ষবরণের অনুষ্ঠানে ঘিরে ধুন্ধুমার কর্নাটকে ]

ভারতীয় জাদুঘরের অডিটোরিয়াম, গোর্কি সদন, রোটারি সদন-সহ বেশ কয়েকটি জায়গায় হবে ভিন্ন স্বাদের এই চলচ্চিত্রগুলির প্রদর্শনী। যুদ্ধবিধ্বস্ত ইরাকের শিশুও ওয়ার গেম ভালবাসে। তাতে মশগুল হয়ে থাকে। এরকপর একদিন সে যখন সত্যিই বন্দুক পায়, তখন কী হয়? এ যেমন মানুষ-প্রকৃতির একটা দিকের সম্পর্ক, তেমনই ধরা যাক জঙ্গলবুকের বালুর কথা। সে ভালুক শিশুমনের কল্পনাকে উসকে দিয়েছে। এই দেশেরই গহন অরণ্যে বালুর প্রজাতির ভালুকরা বাস করে। উঠে আসছে তাদের কথাও। কোনও স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবিতে আবার উঠে আসছে গাছেদের কান্নার কথা। মানুষের বেঁচে থাকার সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে আছে পরিবেশ ও প্রকৃতি। নানা সমীকরণের ওঠাপড়া সে সম্পর্কে। কখনও আত্মধ্বংসের হাতছানি। কখনও আবিষ্কারের বিস্ময়। কখনওবা ভালবাসার আনন্দ। এ ছবিগুলি ক্যালাইডোস্কোপের মতো তুলে ধরবে অনুভূতির সেই নানা রং। আগ্রহী দর্শক তাই ঢুঁ দিতেই পারেন এই সিনে উৎসবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement