১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

উসকানির অভিযোগ, যাদবপুর কাণ্ডে বাবুলের বিরুদ্ধে FIR পড়ুয়াদের

Published by: Sayani Sen |    Posted: September 22, 2019 12:58 pm|    Updated: September 22, 2019 5:30 pm

A group of student loged FIR against Babul Supriyo

যাদবপুরে বাবুল সুপ্রিয়কে ঘিরে উত্তেজনা

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যাদবপুর কাণ্ডে এবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে FIR করল পড়ুয়াদের একাংশ। তাদের অভিযোগ, গত বৃহস্পতিবার বাবুলের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে আগুন জ্বলে ওঠে। বাবুল সুপ্রিয়র মদতেই এবিভিপি-র সদস্যরা ক্যাম্পাসে হামলা এবং ভাঙচুর চালায় বলেও অভিযোগ তাদের।

[আরও পড়ুন: সারদা তদন্তে ডিসি পোর্টকে নোটিস সিবিআইয়ের, রাডারে চার ব্যবসায়ী]

এবিভিপি-র নবীনবরণে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র উপস্থিতির জেরে গত বৃহস্পতিবার কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। টানা ছ’ঘণ্টা ধরে বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে কার্যত হেনস্তা করা হয় তাঁকে। চুলের মুঠি টেনে মারধরের পাশাপাশি শার্ট ছিঁড়ে দেওয়া হয় বাবুলের। তবে তা সত্ত্বেও পুলিশ ডাকতে রাজি হননি উপাচার্য। ছাত্র বিক্ষোভের মাঝেই অসুস্থ হয়ে পড়েন উপাচার্য সুরঞ্জন দাস এবং সহ উপাচার্য প্রদীপ ঘোষ। তাঁদের ঢাকুরিয়ার বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয়। উপাচার্যের গাড়ির সঙ্গে বেরনোর চেষ্টা করে বাবুলের কনভয়। তবে তাতে বাধা দেয় বিক্ষোভকারীরা। অশান্তি আরও বাড়তে থাকে। ইতিমধ্যেই ফোনে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন রাজ্যপাল। তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে ছুটে যান তিনি। তবে ছাত্রছাত্রীদের বিক্ষোভের শিকার হতে হয় রাজ্যপালকেও। এরপর যদিও পুলিশি হস্তক্ষেপে বাবুলকে উদ্ধার করেন তিনি। পালটা আবার ওই বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে ভাঙচুর করতে শুরু করে এবিভিপি। বৃহস্পতিবারের অশান্তির ঘটনায় ওইদিনই স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ফের ধাক্কা রাজীব কুমারের, আগাম জামিনের আবেদন খারিজ আলিপুর আদালতেও]

ওইদিনই বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পলকেও হেনস্তা করা হয় বলেই অভিযোগ। শ্লীলতাহানির অভিযোগ তুলে শুক্রবার যাদবপুর থানার পুলিশের দ্বারস্থ হন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিক্ষোভকারী পড়ুয়াদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন অগ্নিমিত্রা। তার ঠিক পরই এবার বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে যাদবপুরের পড়ুয়ারা। তাদের অভিযোগ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর উসকানিতেই অশান্ত হয়ে উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর। তাই আইনি ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হয় বলেই দাবি পড়ুয়াদের।  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে