৩ শ্রাবণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তৃণমূল নেত্রীর বহু উত্থান পতনের সাক্ষী ২১ জুলাই। ৯৩-এর সেই রক্তাক্ত ইতিহাসকে সঙ্গী করে প্রতিবছরই নতুন করে লড়াইয়ের বার্তা দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। খাতায় কলমে ২১ জুলাইয়ের সভার আয়োজনের দায়িত্ব থাকে যুব তৃণমূলের উপরেই। এবারও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। ২১ জুলাই ধর্মতলার শহিদ সমাবেশের সভার আয়োজনের নেতৃত্বে থাকছে যুব তৃণমূল কংগ্রেসই। সংগঠনের সভাপতি হওয়ার দরুন সভা আয়োজনের মূল দায়িত্ব বর্তেছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর। লোকসভা নির্বাচনে খারাপ ফলের গ্লানি কাটিয়ে দিতে ২১ জুলাইয়ের জমায়েতকেই হাতিয়ার করতে চাইছে তৃণমূল।

[আরও পড়ুন: দিল্লিতে নোয়াপাড়ার তৃণমূল বিধায়ক সুনীল সিং, বিজেপিতে যোগদানের সম্ভাবনা]

সেই লক্ষ্যে কাজও শুরু করে দিয়েছেন যুব তৃণমূলের সভাপতি। ইতিমধ্যেই কালীঘাটে দলের সদর দপ্তরে ২১ জুলাইয়ের প্রস্তুতি শুরুর লক্ষ্যে একটি সভার আয়োজন করে ফেলেছেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন জেলার যুব তৃণমূলের নেতারা। দলের সিনিয়র নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুব্রত বক্সি এবং পার্থ চট্টোপাধ্যায়। মূলত অভিষেকের অনুগামীরা এই সভায় উপস্থিত থাকায়, একটা বিষয় স্পষ্ট লোকসভার পর অভিষেকের ডানা ছাঁটা হতে পারে বলে যে জল্পনা শুরু হয়েছিল, তা নেহাতই জল্পনা এবং তাতে কোনও সারবত্তা নেই। এদিনের বৈঠকে অনুগামীদের উদ্দেশ্যে তৃণমূল যুব সভাপতি বার্তা দেন, এবারের ২১ জুলাইয়ের সমাবেশে রেকর্ড জমায়েত করতে হবে। এবারে ২১ জুলাইয়ের জন্য ইতিমধ্যেই নতুন স্লোগান ঠিক করে ফেলেছেন তৃণমূল নেত্রী। এবারে ২১ জুলাইয়ের মূল সুর হবে ব্যালট ফেরানোর দাবি। সেই অনুযায়ী প্রচার শুরু করছে যুব তৃণমূল।

[আরও পড়ুন: তৃণমূলকে চাপে ফেলতে তৎপর বাংলার বিজেপি সাংসদরা, নয়া কৌশল গেরুয়া শিবিরের]

বিগত কয়েক বছরে দেখা গিয়েছে, ২১ জুলাইয়ের সমাবেশ মানেই নতুন যোগদান। এবং রেকর্ড জমায়েতের বহর। কিন্তু, লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলের পরে রাজ্য রাজনীতিতে এখন অনেকটাই কোণঠাসা তৃণমূল কংগ্রেস। তবে, এবারের ২১ জুলাইয়ের সভাতেও কোনওরকম খামতি রাখতে চাইছে না শাসকদল। লোকসভায় বিজেপি আসন পেলেও তৃণমূলের জনপ্রিয়তায় কোনও ভাটা পড়েনি সেটা প্রমাণ করাই লক্ষ্য। এবং সেই লক্ষ্য জেলায় জেলায়, ব্লকে ব্লকে গিয়ে প্রচার চালাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যুব তৃণমূলের নেতাদের। একাধিক জেলায় গিয়ে প্রচার করতে পারেন খোদ তৃণমূল যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। সব মিলিয়ে ২১ জুলাইয়ের সভার আগে পর্যন্ত, প্রচারে কোনওরকম খামতি রাখতে নারাজ অভিষেক।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং