BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

স্ত্রী-প্রেমিকা দুই নৌকায় পা দিয়ে চলতে চেয়েছিল খুনি! রিজেন্ট পার্ক হত্যাকাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 20, 2020 6:16 pm|    Updated: June 20, 2020 6:24 pm

An Images

অর্ণব আইচ: রিজেন্ট পার্কের আনন্দপল্লির (Anandapally) তরুণী খুনের ঘটনার কয়েকঘণ্টার মধ্যেই পুলিশের জালে ধরা পড়েছে অভিযুক্ত। একইসঙ্গে প্রকাশ্যে এসেছে একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য। জানা গিয়েছে, মাস ছয়েক আগে স্বামীর প্রেমিকার কথা জানতে পেরে বাপের বাড়ি চলে গিয়েছিলেন অভিযুক্তের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী। এরপরই প্রেমিকাকে ফিরে পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছিল জয়ন্ত। হুমকি দিতে শুরু করেছিল মৃতার বর্তমান প্রেমিক ও পরিবারকে। অভিযুক্তকে সংসার জীবনে ফেরানোর চেষ্টা করা হলে সে জানিয়েছিল, ‘একসঙ্গে দুটো সম্পর্কই রাখব!’  অর্থাৎ দুই নৌকোয় পা দিয়েই জীবন কাটাতে চেয়েছিল খুনি। 

ঘটনার সূত্রপাত বহু বছর আগে। একদিনে প্রতিবেশী নাবালিকা অন্যদিকে আনন্দপল্লির প্রিয়াঙ্কা, একইসঙ্গে দু’জনের সঙ্গে সম্পর্ক বজায় রেখেছিল অভিযুক্ত জয়ন্ত। পরে পালিয়ে প্রতিবেশী নাবালিকাকে বিয়েও করে সে। কিন্তু মৃতা তরুণী দীর্ঘদিন সে বিষয়ে কিছুই জানতেন না। এমনকী স্বামীর প্রেমিকার বিষয়ে কোনও তথ্য ছিল না কাজলদেবীর কাছেও। দুজনের সঙ্গেই স্বাভাবিক ছন্দে চলছিল জয়ন্তর সম্পর্ক। বছর তিনের আগে মৃত প্রিয়াঙ্কা জানতে পারেন যে, তাঁর প্রেমিক বিবাহিত। স্বাভাবিকভাবেই এরপরই ওই যুবককে এড়িয়ে চলতে শুরু করে প্রিয়াঙ্কা। একাধিকবার তাঁকে বুঝিয়ে সম্পর্ক ঠিক করার চেষ্টা করে ধৃত। এরই মাঝে নতুন সম্পর্কে জড়ান প্রিয়াঙ্কা। তা মেনে নিতে পারেনি অভিযুক্ত। মাস ছয়েক আগে প্রেমিকার বিষয়টি জেনে যান জয়ন্তর স্ত্রী কাজল। এরপরই অশান্তি করে তিনি চলে যান বাপের বাড়িতে।

[আরও পড়ুন: এবার বাড়িতে বসেই ইসকনের রথের দড়ি টানতে পারবেন আপনিও, জানেন কীভাবে?]

স্ত্রী ঘরছাড়তেই ফের প্রিয়াঙ্কাকে উত্যক্ত করা শুরু করে জয়ন্ত। তাঁর বাড়িতে গিয়ে জানায়, স্ত্রী চলে গিয়েছে তাই এখন সে প্রিয়াঙ্কাকে বিয়ে করতে পারবে! কেড়ে নেয় প্রিয়াঙ্কার ফোন। হুমকি দেয় তাঁর বর্তমান প্রেমিককে। খুনের হুমকি দেয় প্রিয়াঙ্কা ও তাঁর পরিবারের সদস্যদেরও। সেই সময়ই যে জামাইবাবুর মাধ্যমে প্রিয়াঙ্কা ও জয়ন্তর পরিচয় হয়েছিল তিনি অভিযুক্তকে বুঝিয়ে প্রিয়াঙ্কার জীবন থেকে সরে যেতে বলেছিলেন। কিন্তু তাতে রাজি হওয়া তো দূর, ধৃত সাফ জানিয়েছিল যে, একই সঙ্গে দুটো সম্পর্কই রাখবে সে! এরপর ফের স্ত্রী ফিরে আসে ঘরে। কিন্তু তখনও সংসারের পাশাপাশি প্রিয়াঙ্কার গতিবিধি উপর নজর রাখছিল জয়ন্ত। শুক্রবার রাতে স্ত্রীর সঙ্গে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করে ধৃত, সোমবারই যে তার পরিবারে আসছে নতুন সদস্য। তারপর সকালেই আচমকা এই ঘটনা। কিন্তু কেন এই নৃশংসতা? তবে কী প্রেমিকার নতুন সম্পর্ক তৈরি হওয়ার কারণেই খুন? প্রেমিক বিবাহিত জেনেও সম্পর্ক বজায় রাখলে হয়তো এই পরিণতি হত না তরুণীর, এমনটাই মনে করছেন অনেকে।

[আরও পড়ুন: রথের দিনই ভক্তদের জন্য খুলে যাচ্ছে তারাপীঠ মন্দির, জেনে নিন প্রবেশের নিয়ম]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement