BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

যশবন্তপুরগামী দুরন্ত এক্সপ্রেসে বিকল বাতানুকূল যন্ত্র, মৃত্যু অসুস্থ যাত্রীর

Published by: Bishakha Pal |    Posted: May 12, 2019 11:55 am|    Updated: May 12, 2019 2:28 pm

As AC not working in Duronto Express, passengers agitated

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দুরন্ত এক্সপ্রেসের পরিষেবা নিয়ে ফের একবার উঠল অভিযোগ। শনিবার হাওড়া-যশবন্তপুর দুরন্ত এক্সপ্রেস ছাড়ার পর ট্রেনের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র কাজ করছিল না বলে অভিযোগ তোলেন যাত্রীরা। এই নিয়ে রেলের কাছে যাত্রীরা লিখিত অভিযোগ জানান। এসি বন্ধ থাকার কারণে রবিবার ট্রেনেই এক ব্যক্তির মৃত্যুর খবরও পাওয়া গিয়েছে। তিনি চিকিৎসার জন্য বেঙ্গালুরু যাচ্ছিলেন।

শনিবার সকাল ১০টা ৫০ মিনিট নাগাদ হাওড়া থেকে ছাড়ে হাওড়া-যশবন্তপুর দুরন্ত এক্সপ্রেস। যাত্রীদের অভিযোগ, ট্রেন ছাড়ার পর থেকে B1, B2, A1 কোচের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র কাজ করছিল না। পাঁচ ঘণ্টা ধরে একই পরিস্থিতি ছিল প্রতিটি কামরায়। যাত্রীদের আরও অভিযোগ, একদিকে বন্ধ কামরা, তার উপর এসি বন্ধ; ফলে দমবন্ধকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। অসুস্থ হয়ে পড়েন অনেকে। একাধিকবার রেল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি বলে জানিয়েছেন যাত্রীরা। অবশেষে কার্যত বাধ্য হয়েই বালাসোর স্টেশনে টিটির কাছ থেকে ফর্ম নিয়ে তাঁরা লিখিত অভিযোগ জানান। ভারতীয় রেলের ওয়েরসাইটেও অভিযাগ জানান যাত্রীরা।

[ আরও পড়ুন: ভারতীকে ঘিরে বিক্ষোভ ঠেকাতে চার রাউন্ড গুলি দেহরক্ষীর, গুরুতর জখম এক ]

duronto-1

কিন্তু বালাসোরে লিখিত অভিযোগ জানানোর পরও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি রেল। সন্ধে ৭টা নাগাদ ভুবনেশ্বরে পৌঁছয় দুরন্ত এক্সপ্রেস। ট্রেনের ওই কামরাগুলির মধ্যে একটিতে সাড়ে তিন মাসের এক অসুস্থ শিশুও ছিল। স্যালাইন চলছিল তাঁর। এসি বন্ধ থাকার ফলে সে আরও অসুস্থ হয়ে পড়ে। এমন ঘটনায় ভুবনেশ্বর স্টেশন মাস্টারের কাছে গিয়ে বিক্ষোভ দেখায় ওই শিশুর পরিবার। তাঁদের সঙ্গে ট্রেনের অন্য যাত্রীরাও ছিলেন। স্টেশন মাস্টারের কাছে তাঁরা অভিযোগ করেন, এসি না চলায় ট্রেনে ওই সাড়ে তিন মাসের শিশুটি আরও অসুস্থ হয়ে পড়ছে। এছাড়া আরও অনেক রোগী রয়েছে ট্রেনে। চিকিৎসা করতে বেঙ্গালুরু যাচ্ছে তারা। গরমে তাদের অবস্থাও ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছে।

এদিকে স্টেশন মাস্টারের ঘরে যখন যাত্রীরা অভিযোগ জানাচ্ছিলেন, তখন গার্ড কিছু না জানিয়েই ট্রেন ছেড়ে দেয় বলে অভিযোগ। ফলে ট্রেনে ওঠার জন্য ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়ে যায় ভুবনেশ্বর প্ল্যাটফর্মে। অনেক মহিলাকে ঠেলে ট্রেনে তুলে দেওয়া হলেও পুরুষ যাত্রীরা অনেকেই ট্রেনে উঠতে পারেননি। মহিলারা ট্রেনে উঠে চেন টেনে ট্রেন থামান। ঘটনায় যাত্রীরা আরও বিক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন। স্টেশন চত্বরেই শুরু হয় বিক্ষোভ। স্টেশন মাস্টারকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখান যাত্রীরা। অবশেষে যাত্রীদের বিক্ষোভে কাজ হয়। জানা গিয়েছে, এর পর রেলের তরফে মাত্র একজন টেকনিশিয়ানকে পাঠানো হয়। ঠিক হয় শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র। কিন্তু যাত্রীদের অভিযোগ, এরপর এসি চললেও কামরা পুরোপুরি ঠান্ডা হচ্ছে না। এসি ২৫ শতাংশ কাজ করছে। ফলে ঠান্ডা হচ্ছে না কামরা। এমন পরিস্থিতিতে এক অসুস্থ ব্যক্তি হঠাৎই মারা যান। ট্রেনটি অন্ধ্রপ্রদেশে ঢোকার মুখে রবিবার বেলা ১২টা ২০ নাগাদ মৃত্যু হয় তাঁর। বয়স ছিল ৪০ বছর। নাম সাগর বাঁশুরি।

[ আরও পড়ুন: বিজেপির ব্যানার খোলা নিয়ে গন্ডগোল, মেট্রো রক্ষীদের হাতে হেনস্তার অভিযোগ পুরকর্মীদের ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে