BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ফাঁকা বুলি নয়, বঞ্চিত মহিলাদের জন্য ফ্রি রেশন-ডিজিটাল কার্ড, নির্দেশিকা জারি রাজ্যের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: August 18, 2020 9:41 pm|    Updated: August 18, 2020 9:41 pm

An Images

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: সোমবার নবান্ন থেকে মুখ্যমন্ত্রী যৌনকর্মী-সহ অসহায় মহিলাদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছিলেন। সেই মতোই মঙ্গলবার থেকেই তাঁদের ডিজিটাল রেশন কার্ডের সুবিধা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করল রাজ্য সরকার। সেপ্টেম্বরের মধ্যেই প্রত্যেকের হাতে ডিজিটাল রেশন কার্ড পৌঁছে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেই খবর।

করোনা (Corona Virus) পরিস্থিতিতে সর্বত্র ডাক বিভাগের পরিষেবা নাও মিলতে পারে, ফলে কারও কার্ড পেতে সমস্যা হতে পারে। জানা গিয়েছে, সেকথা চিন্তা করে ফুড কুপনের ব্যবস্থাও করছে খাদ্য দপ্তর। যা ব্যবহার করে আগামী বছর জুন মাস পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশনের সামগ্রী তোলা যাবে। করোনা আবহে যৌনকর্মীদের অভাব-অসুবিধার কথা প্রশাসনের শীর্ষ কর্তাদের মনে করিয়ে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর ইচ্ছে প্রকাশ করেছিলেন। এরপরই তাঁদের জন্য ডিজিটাল রেশন কার্ড বানানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হল।

[আরও পড়ুন: বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশৃঙ্খলা কাণ্ডে CBI তদন্তের দাবি জানাল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ]

সূত্রের খবর, যদি কেউ ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন না করে থাকেন, সেক্ষেত্রেও তিনি সমস্যায় পড়লে তাঁকে সাহায্য করা হবে। শুধু যৌনকর্মীই নন, দপ্তরের তরফে বলা হয়েছে, সবরকমভাবে বঞ্চিত মহিলাদের কথা ভেবেই সরকারের এই সিদ্ধান্ত। স্বামী পরিত্যক্তা হয়ে একেবারে হতদরিদ্র অবস্থা, এমন বহু মানুষ রয়েছেন রাজ্যে। অনেক সময় খবর পেয়ে এমন সহায় সম্বলহীন মানুষদের উদ্ধারও করেছে প্রশাসন। সেই সমস্ত মানুষেরা যেখানেই থাকুন, এবার পুরসভা বা স্থানীয় পুলিশ-প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাঁদের হাতে পৌঁছে দেওয়া হবে ফুড কুপন। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায়, প্রশাসন এমন মানুষের খোঁজ পেলেও তাঁদের ঠিকানার তথ্য দিতে পারেন না ওই মহিলারা। সেক্ষেত্রেও সাহায্য করবে প্রশাসন। উল্লেখ্য, সোমবারই নবান্ন থেকে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। করোনাকালে অভাবী-অসহায় মহিলাদের দুর্দশা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি আশ্বাস দিয়েছিলেন পাশে দাঁড়ানোর।

[আরও পড়ুন: বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশৃঙ্খলা কাণ্ডে CBI তদন্তের দাবি জানাল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement