১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

দরজায় প্রয়োজনীয় সামগ্রী পৌঁছে দেবে ‘সহায়ক যান’, প্রবীণদের জন্য উদ্যোগ বিধাননগর পুলিশের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 11, 2020 5:22 pm|    Updated: April 11, 2020 5:22 pm

Bidhannagar Police Commissionarate starts 'Sahayak jan' to help elderly people

কলহার মুখোপাধ্যায়, বিধাননগর: লকডাউনের জেরে ঘরে ঘরে ভাঁড়ারে টান। বাজার বন্ধ, দোকানও সীমিত সময়ের জন্য খোলা। তাতেই রসদ সংগ্রহের হুড়োহুড়ি। বয়স্ক নাগরিকদের কাছে এভাবে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সংগ্রহ করা বেশ অসুবিধাজনক। তা বুঝতে পেরে এবার এগিয়ে এল বিধাননগর পুলিশ। ওই এলাকায় নামানো হল পাঁচটি ‘সহায়ক যান’। আজ, শনিবার সকালেই তার উদ্বোধন করলেন বিধাননগর কমিশনারেটের ডিসি, ট্রাফিক ধৃতিমান সরকার। এই পাঁচটি যান সর্বক্ষণ এলাকার বয়স্কদের জন্য কাজ করবে। তাঁদের কাছে পৌঁছে দেবে খাবার, ওষুধের মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী। এর পরিষেবা চালু হওয়ায় কিছুটা স্বস্তিতে সল্টলেক ও পার্শ্ববর্তী এলাকার একাকী বৃদ্ধ-বৃদ্ধারা।

Sahayak-jan SaltLake

দেশে যে লকডাউনের সময়সীমা আরও বাড়ছে, সেই ইঙ্গিত স্পষ্ট। শুধু আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হওয়ার অপেক্ষা। বাংলায় লকডাউন চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত, তা আজই নবান্নে ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই পরিস্থিতিতে দেশের ঘরে ঘরে যেন পৌঁছে যায় অত্যাবশ্যকীয় পণ্য, তেমনই নির্দেশ রয়েছে প্রশাসনের। প্রতিটি রাজ্য প্রশাসনের হাতে রয়েছে এই ভার। এ রাজ্যেও সেই দায়িত্ব যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করার চেষ্টায় রয়েছে প্রশাসন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি সেই কাজে সরকারকে সহযোগিতা করতে নেমেছে পুলিশও। কলকাতা এবং রাজ্য পুলিশ উভয়েই নিজের নিজের এলাকায় আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া এবং দুস্থদের জন্য খাদ্যসামগ্রী বণ্টনের কাজ করে বাড়তি দায়িত্ব পালন করেছে। তার মাঝে বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেট নামল অন্য এক ভূমিকায়। তারা এগিয়ে এল বয়স্ক নাগরিকদের দেখভালের কাজে।

[আরও পড়ুন: সংক্রমণ রুখতে কড়া নিদান, অস্ত্রোপচারেও ডাক্তারদের পরতে হবে করোনা বর্ম]

শনিবার থেকে বিধাননগর এলাকায় চালু হয়েছে সহায়ক যান। পাঁচটি যান ২৪ ঘণ্টাই ঘুরবে বিধাননগর এলাকায়। তাতে থাকবে ওষুধ, সবজি, খাদ্যসামগ্রী ও গেরস্থালির প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। চালু হয়েছে একটি কন্ট্রোল রুম, নম্বর ৬২৯১৬০৬১৬১। এই নম্বরে ডায়াল করলেই বাড়ির দোরগোড়ায় হাজির হবে এই গাড়ি। এসব গাড়িতে থাকবে জিপিএস ট্র্যাকার, যার মাধ্যমে নির্দিষ্ট ঠিকানায় পৌঁছে যাবে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। সোশ্যাল ডিসট্যান্স মেনেই এই পরিষেবা দেওয়া হবে বলে আশ্বস্ত করেছেন ডিসি, ট্রাফিক ধৃতিমান সরকার। তিনি বারবারই আশ্বস্ত করেন যে কোনও প্রয়োজনে বাড়ির প্রবীণ নাগরিকদের বাইরে বেরনোর কোনও দরকার নেই। ওই নম্বরে ফোন করলেই সমস্ত পরিষেবা পৌঁছে যাবে ঘরে ঘরে। তাঁদের জন্য ২৪x৭ চালু থাকবে ‘সহায়ক যান’ পরিষেবা। শনিবার থেকেই এই পরিষেবা মিলবে বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের অন্তর্গত সমস্ত এলাকায়।

[আরও পড়ুন: করোনা পজিটিভ ওষুধ ব্যবসায়ী, বাগরি মার্কেটে ব্যাপক আতঙ্ক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে