BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘দিদিকে বলো’র অনুকরণ! আমফান দুর্গতদের জন্য ‘দিলীপদাকে বলো’ কর্মসূচি বিজেপির

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 6, 2020 12:28 pm|    Updated: July 6, 2020 3:02 pm

An Images

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: আমফানের (Amphan) ত্রাণ নিয়ে অভিযোগ লেগেই রয়েছে। কোথাও পর্যাপ্ত পরিমাণ ক্ষতিপূরণ পাচ্ছেন না ক্ষতিগ্রস্তরা। কোথাও আবার তাঁদের প্রাপ্তির ভাঁড়ার শূন্য। যা নিয়ে বারবার সরব হয়েছে বিজেপি। কাঠগড়ায় তুলেছে তৃণমূলকে। এবার ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতা করতে সরাসরি ময়দানে নামল রাজ্য বিজেপি (BJP)। ‘দিদিকে বলো’র মতোই শুরু হচ্ছে ‘দিলীপদাকে বলো’।

কিন্তু বিষয়টা ঠিক কী? জানা গিয়েছে, বিজেপির তরফে একটি ওয়েবসাইট (https://amaderdilipda.in/cyclone-amphan/) লঞ্চ করা হয়েছে।

dilip

নির্দিষ্ট সেই সাইটে প্রবেশ করে আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত যারা ক্ষতিপূরণ পাননি তাঁরা রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষকে (Dilip Ghosh) বিষয়টি সরাসরি জানাতে পারবেন। তবে অভিযোগ জানানোর জন্য ওয়েবসাইটে দিতে হবে অভিযোগকারীর নাম, মোবাইল নম্বর, আধার কার্ডের নম্বর। অভিযোগ ক্ষতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেবেন সাংসদ। তারপর প্রয়োজন মোতাবেক বিষয়টি কেন্দ্র ও রাজ্য করে জানানো হবে। এতে ক্ষতিগ্রস্তদের ভোগান্তি অনেকটাই কমবে বলে মনে করছে বিজেপি।

dilip-2

[আরও পড়ুন: চিকিৎসায় গাফিলতিতে ২ অফিসারের মৃত্যু, স্বাস্থ্যকর্তার অপসারণের দাবিতে আন্দোলনে রেলকর্মীরা]

প্রসঙ্গত, আমফানের পর দেড় মাস পেরিয়ে গেলেও এখনও বিভিন্ন প্রান্তের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষেরা সরকারের তরফে প্রাপ্য ত্রাণ পাননি। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অভিযোগ উঠেছে যে, প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবর্তে পরিবারের সদস্যদের ত্রাণ পাইয়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেতারা। ফলে বিপদে পড়ছেন দুর্গতরা। চাপে পড়ে অনেক অভিযুক্ত অভিযোগ স্বীকারও করে নিয়েছেন। তাঁদের বিরুদ্ধ কঠোর ব্যবস্থাও নিয়েছে প্রশাসন। কিন্তু এই গোটা বিষয়ে সমস্যা ভোগ করতে হচ্ছে অসহায় মানুষগুলোকে। সেই কারণেই, তাঁদের কথা ভেবে বিজেপির এই নয়া উদ্যোগ। প্রসঙ্গত, বিজেপির তরফে ক্ষতিগ্রস্তদের একটি তালিকাও তৈরি করা হচ্ছে, যেটি কেন্দ্রে পাঠানো হবে। পাশপাশি, প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরা হবে যে, কীভাবে আমফান পরবর্তীতে কাজ করতে গিয়ে প্রতি পদে বাধার মুখে পড়তে হয়েছে বিজেপিকে। 

[আরও পড়ুন: সরকার বন্ধ করেনি, অথচ দেড় বছর ধরে বেতন পাচ্ছেন না, অবশেষে আদালতের দ্বারস্থ শিক্ষক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement