BREAKING NEWS

০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২৫ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘অভিযুক্তের ফাঁসি চাই, নাহলে শেষ দেখে ছাড়ব’, চোপড়া ধর্ষণকাণ্ডে হুঁশিয়ারি অগ্নিমিত্রার

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: July 19, 2020 7:05 pm|    Updated: July 19, 2020 7:11 pm

BJP Mohila Morcha leader Agnimitra Paul opens up on Chopra rape case

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিজেপির (BJP) বুথ সভাপতির বোনকে বাড়ি থেকে অপহরণ করে ধর্ষণ ও খুনের অভিযোগ। অভিযোগের তীর তৃণমূলের দিকে। ঘটনার জেরে প্রতিবাদ-বিক্ষোভে রবিবার রণক্ষেত্র হয়ে উঠেছিল চোপড়া। এবার চোপড়ার সেই ধর্ষণকাণ্ড নিয়েই মুখ খুললেন বিজেপি মহিলা মোর্চার নেত্রী অগ্নিমিত্রা পল (Agnimitra Paul)। সাফ জানিয়ে দিলেন, “অভিযুক্তের ফাঁসি চাই, নাহলে এর শেষ দেখে ছাড়ব!”

সংশ্লিষ্ট ঘটনার প্রতিবাদে উত্তর দিনাজপুরের চোপড়ার কালাগড়ে ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। বিজেপি নেত্রীর অভিযোগ, তৃণমূলের মদতেই এসব কাজ হচ্ছে। অগ্নিমিত্রা পলের কথায়, “উত্তর দিনাজপুরের রাজবংশী সম্প্রদায়ের উপর বারবার আঘাত হানছে তৃণমূল। কেন জানেন? কারণ, এই সম্প্রদায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পাশে দাঁড়িয়েছে। সেই কারণেই তৃণমূলের গুণ্ডাবাহিনি রাজবংশী সম্প্রদায়ের উপর বেছে বেছে আক্রমণ চালাচ্ছে। একবছর আগে, রাজবংশী সম্প্রদায়েরই মেয়ে জবা বর্মনকেও ঠিক একইভাবে ধর্ষণ করে খুন করা হয়। সাত-আট মাস আগে প্রমিলা রায় নামে আরেকটি রাজবংশী মেয়েকেও তৃণমূল নেতাদের লালসার শিকার হতে হয়।”

Agnimitra-Paul
ফাইল ছবি।

চোপড়া ধর্ষণ কাণ্ডে অগ্নিমিত্রার মন্তব্য, “ধর্ষিতার বয়স ১৬। কাজেই পকসো আইনের আওতায় আমরা অভিযুক্তের কড়া শাস্তি চাই। ফাঁসিতে ঝোলানো হোক তাকে। নইলে আমরা এর শেষ দেখে ছাড়ব।” ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করে চোপড়া ধর্ষণ কাণ্ডের প্রতিবাদের পাশাপাশি হেমতাবাদের ঘটনা নিয়েও সরব হন। বলেন, “হেমতাবাদের বিজেপি বিধায়ককেও খুন করে বাজারের মাঝখানে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। পরে দাবি করা হয় যে, তিনি নাকি আত্মহত্যা করেছেন।”

[আরও পড়ুন: CESC’র ব্যাখ্যায় অখুশি রাজ্য, নোটিস পাঠানোর ভাবনা ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তরের]

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে বিজেপি মহিলা মোর্চা প্রধানের মন্তব্য, “গোটা রাজ্যে মহিলাদের উপর এত অন্যায়-অবিচার হচ্ছে, মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী নিজে একজন মহিলা হয়ে কোনও কথাই বলছেন না এই বিষয়ে। আমার প্রশ্ন, কেন দিদি এই বাবুসোনাদের প্রোটেক্ট করছেন? রাজ্যে শিল্প তো আনতেই পারেননি মুখ্যমন্ত্রী। উনি কী তাহলে ধর্ষণটাকেই শিল্প হিসেবে দেখাতে চাইছেন? বেছে বেছে ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্যদের পরিবারের মহিলাদের উপর আক্রমণ হানা বন্ধ করুন। আমরা ২০২১-এ সরকার গড়ব। বাংলার মানুষ কিন্তু আপনার এই নীরবতা দেখেই সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছে যে আপনার সরকার আর চাই না তাদের। এই অন্যায়-অবিচার আমরা আর মেনে নেব না। মুখ্যমন্ত্রীর জন্যই পুলিশ প্রসাশন কোনও পদক্ষেপ করছে না।”

[আরও পড়ুন: দুই কোভিড পজিটিভ প্রসূতিকে ছিনিয়ে নিয়ে গেল পরিবার, হা করে দেখলেন পুলিশ-স্বাস্থ্যকর্মীরা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে