১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  শনিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘নন্দীগ্রামে গেলেই মুশকিল তা বুঝে গিয়েছেন’, সভা স্থগিত নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে খোঁচা দিলীপের

Published by: Sayani Sen |    Posted: December 28, 2020 4:01 pm|    Updated: December 28, 2020 10:49 pm

BJP MP Dilip Ghosh slams CM Mamata Banerjee over Nandigram issue ।Sangbad Pratidin

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: আগামী বছরেই বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে বিনা যুদ্ধে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়তে নারাজ শাসক-বিরোধী উভয়পক্ষই। প্রায় প্রতিদিনই একটু করে বাড়ছে দু’পক্ষের কথার ঝাঁজ। বোলপুরের প্রশাসনিক সভায় যখন রাজ্য সরকারের একাধিক জনমুখী কর্মসূচির হালহকিকত সম্পর্কিত খোঁজখবর নিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী, ঠিক তখন একাধিক ইস্যুতে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।

প্রতি বছর ৭ জানুয়ারি নন্দীগ্রামে (Nanadigram) ‘শহিদ দিবস’ হিসেবে পালিত হয়। এতদিন এই দিনটিতে সরকারের তরফে উপস্থিত থেকে গোটা বিষয়টি পরিচালনা করতেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikary)। তিনি নন্দীগ্রামের সদ্যপ্রাক্তন বিধায়কও। কিন্তু এ বছর সেই ছবি পালটেছে। তৃণমূলের সঙ্গে দু’দশকের সম্পর্ক ছিন্ন করে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন শুভেন্দু। আর তারপরই মুখ্যমন্ত্রী ঠিক করেছিলেন, এ বছর ৭ জানুয়ারি তিনি নিজেই নন্দীগ্রামের ওই সভায় উপস্থিত থাকবেন। তবে আচমকাই জানা গিয়েছে রামনগরের বিধায়ক অখিল গিরি (Akhil Giri) করোনা আক্রান্ত। তিনি বর্তমানে কলকাতার একটি হাসপাতালে ভরতি। তাই সুব্রত মুখোপাধ্যায় সাংবাদিক বৈঠক করে জানিয়ে দেন অখিল গিরির অসুস্থতার কারণেই নন্দীগ্রামের অনুষ্ঠানের পিছিয়ে দেওয়া হল। সেই সিদ্ধান্তকে নিয়েও খোঁচা দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি, “নন্দীগ্রাম ভাঙিয়ে আর খাওয়া যাবে না, ওখানে গেলেই মুশকিল তা মমতা বুঝে গিয়েছেন। তাই নন্দীগ্রামে সভা পিছিয়ে দিয়েছেন।”

[আরও পড়ুন: কলকাতায় আজও জাঁকিয়ে শীত, বছরের শেষ সপ্তাহে ঠান্ডার আমেজ দুই বঙ্গেও]

এদিকে, বর্তমানে বীরভূম সফরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। মঙ্গলবার একটি রোড শোও রয়েছে তাঁর। ঠিক কয়েকদিন আগে ঠিক একই জায়গায় রোড শো করেছিলেন অমিত শাহ। তারই পালটা মুখ্যমন্ত্রীর কর্মসূচি। এই রোড শো নিয়েও তৃণমূলকে খোঁচা দিতে ছাড়েননি খড়গপুরের বিজেপি সাংসদ। তাঁর কটাক্ষ, “আমরা এগিয়ে গিয়েছি। সরকার পিছনে চলছে আমাদের। তাই তো দাঁড়াচ্ছে। আমরা যেখানে যাব। তৃণমূল সেখানে যাবে। আমরা ভোটের প্রচার চালাব। জায়গায় জায়গায় গিয়ে চালাব। তাতে তৃণমূল কী করল আমরা ভাবছি না।” 

দিলীপ ঘোষের মতো একই সুর শোনা গিয়েছে অনুপম হাজরার (Anupam Hazra) গলাতেও। তাঁর অভিযোগ, অন্য জায়গার লোকজন নিয়ে এসে রোড শো-তে ভিড় বাড়ানোর চেষ্টা করছেন অনুব্রত মণ্ডল।

আগামিকালের রোড শোয় ঠিক কত মানুষ ভিড় জমান, সেটাই বড় চ্যালেঞ্জ। তবে বিজেপির আক্রমণের পালটা কোনও প্রতিক্রিয়া তৃণমূলের তরফে পাওয়া যায়নি। 

[আরও পড়ুন: মিরাকল! পর্ণশ্রীর চারতলার ছাদ থেকে পড়ে আহত একরত্তি সুস্থ হয়ে ফিরল বাড়ি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে