৫ মাঘ  ১৪২৫  রবিবার ২০ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে বিল পাশ হওয়ার পরই এটাকে লোকসভা ভোটের প্রচারে হাতিয়ার করতে নেমে পড়ল বঙ্গ বিজেপি। বিরোধীদের আপত্তি খারিজ করে মঙ্গলবার লোকসভায় ধ্বনি ভোটে পাস হয়েছে নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিল। বাংলাদেশ, পাকিস্তান, আফগানিস্তান এই তিন দেশ থেকে আগত অমুসলিম শরণার্থীদের ভারতীয় নাগরিকত্ব প্রদান সংক্রান্ত এই বিল। বঙ্গ বিজেপি অবশ্য এই বিলটিকে হাতিয়ার করে দলের ভোট ব্যাংক বাড়াতে নেমে পড়েছে। রাজ্যের ১ কোটি উদ্বাস্তু ভোট ব্যাংকই লোকসভা ভোটে লক্ষ্য বিজেপির। মঙ্গলবার এই বিলটি পাশ হওয়ার পর বুধবার রাজ্য বিজেপি দপ্তরের সামনে মিছিল হয়। ধন্যবাদ জানানো হয় কেন্দ্রীয় সরকারকে। উদ্বাস্তুদের মন পেতে নাগরিকত্ব বিল যে লোকসভা ভোটের প্রচারে বিজেপির অন্যতম হাতিয়ার হয়ে উঠতে চলেছে তা স্পষ্ট এদিন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের বক্তব্য থেকেই।

[উদ্বাস্তুদের জমির স্বত্ব দেবে রাজ্য, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর]

বুধবার রাজ্য বিজেপি দপ্তরে সাংবাদিক সম্মেলন করেন দিলীপ ঘোষ। ছিলেন দলের উদ্বাস্তু সেলের আহ্বায়ক মোহিত রায়ও। এই বিল পাশ নিয়ে দিলীপ বলেন, “পশ্চিমবঙ্গের ১ কোটি উদ্বাস্তুর সুবিধা হবে। মতুয়ারা দীর্ঘদিন ধরে এর অপেক্ষায় ছিলেন। রাজ্যে দলের উদ্বাস্তু সেলের পক্ষ থেকে দুবার দিল্লিতে প্রতিনিধিদল গিয়ে বাংলার উদ্বাস্তুদের কথা বলে এসেছিল। বাংলার উদ্বাস্তুরা সুযোগ সুবিধা পেত না। বাংলাদেশ থেকে আসা হিন্দু শরণার্থীরা এবার নাগরিকত্বের সম্মান পাবেন। এতে এনারসির কাজ অনেকটাই এগিয়ে গেল। বেআইনি অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করতে সুবিধা হবে।” বিজেপির রাজ্য সভাপতির দাবি, ঐতিহাসিক এই বিল। ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত পাশ হয়েছে। লোকসভায় এই বিলের বিরোধিতা করেছে তৃণমূল। এই বিলকে ‘বিভেদ সৃষ্টিকারী’ বিল বলে আখ্যা দিয়েছে তৃণমূল। তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় মঙ্গলবার দিল্লিতে অভিযোগ করেছেন, লোকসভা নির্বাচনের আগে এই বিল আনার পিছনে বিজেপি ভোট ব্যাংকের রাজনীতি করছে ও পশ্চিমবঙ্গে হিন্দু ভোট পাওয়ার চেষ্টা করছে। দিলীপ ঘোষের পালটা অভিযোগ, তৃণমূল বিলের বিরোধিতা করে বুঝিয়ে দিল তারা হিন্দু বাঙালি বিরোধী।

[তৃণমূলে গুরুত্ব হারিয়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন সাংসদ সৌমিত্র খাঁ]

এদিকে, কাল শুক্রবার ও পরশু শনিবার দিল্লিতে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বিজেপির জাতীয় পরিষদের বর্ধিত বৈঠক। সারা দেশ থেকে দলের ১২ হাজারেরও বেশি প্রতিনিধি উপস্থিত থাকবে। বাংলা থেকে যাচ্ছে ৬০০-রও বেশি নেতা। দলীয় সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব বঙ্গ বিজেপিকে নির্দেশ দিয়েছে, নাগরিকত্ব বিলটি নিয়ে প্রচারে নেমে পরার। দিল্লিতে জাতীয় পরিষদের বৈঠকেও বিলটি নিয়ে প্রচারের রূপরেখা বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ঠিক করে দেবেন বলে খবর।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং