BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ঘরের ভিতর মাথা থেঁতলে খুন যুবক, কারণ নিয়ে ধন্দে পুলিশ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 19, 2019 9:39 pm|    Updated: April 21, 2019 5:13 pm

An Images

অর্ণব আইচ:  ঘর থেকে এক যুবকের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য পূর্ব কলকাতার লেদার কমপ্লেক্স থানা এলাকার ভোজেরহাটে। শুক্রবার দুপুরে সানি শেখ নামে ওই যুবকের দেহ উদ্ধার হয়। তাঁর বয়স আনুমানিক ৩০ বছর৷ প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, মাথা থেঁতলে খুন করা হয়েছে তাঁকে। ইতিমধ্যেই, লালবাজারের গোয়েন্দার বিভাগের আধিকারিকেরা পুলিশ কুকুর নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ করেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা।

[আরও পড়ুন: চেকিংয়ের ‘সেরা’, হাওড়া স্টেশনে টিটিইদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্তে টিআই প্যারেড]

পুলিশ সূত্রে খবর, মুর্শিদাবাদের ভরতপুরের বাসিন্দা ওই যুবক। পেশার কারণে প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে ভোজেরহাটে একটি ঘর ভাড়া নেন তিনি। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে চুল কিনতেন তিনি। সেই চুল বিক্রি করতেন পরচুলার ব্যবসায়ীদের কাছে। জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সন্ধেয় কাজ সেরে বাড়ি ফেরেন তিনি। এরপর শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত তাঁর ঘর বন্ধ দেখে সন্দেহ হয় বাড়ির মালিক জাহাঙ্গির মোল্লার। বাইরে থেকে ডাকাডাকির পরও সাড়া না পেয়ে দরজা খুলে ভিতরে ঢোকেন তিনি। তখনই দেখতে পান,  মেঝেয় রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন সানি। মেঝে ভেসে যাচ্ছে রক্তে। পুলিশের অনুমান, ঘুমন্ত অবস্থায় তাঁকে খুন করেছে। মৃতের লুঠ হওয়া মোবাইলের টাওয়ার লোকেশন ট্র্যাক করে যুবক খুনের নেপথ্যে কারা, তা জানার চেষ্টা করছে তদন্তকারীরা।

[আরও পড়ুন: দমদমে বিজেপি পার্টি অফিসে হামলায় জখম জেলা সম্পাদক, কাঠগড়ায় তৃণমূল]

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, পুরনো  শত্রুতার জেরেই ভারী কোনও বস্তু দিয়ে ওই যুবককে খুন করে অভিযুক্ত। প্রমাণ লোপাটের জন্য মৃতের মোবাইল ও মানিব্যাগ নিয়ে চম্পট দিয়েছে অভিযুক্ত। তবে ঘরের কোনও জিনিস খোয়া যায়নি বলেই অনুমান পুলিশের। জানা গিয়েছে,  তিনবার বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে ওই যুবকের। তাই পেশাগত না কি ব্যক্তিগত  কোনও কারণে এই খুন, তা জানার চেষ্টা করছেন তদন্তকারীরা। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement