২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

এখনই CBI নয়, মণীশ শুক্লা হত্যার তদন্তে CID’র উপরই ভরসা রাখল হাই কোর্ট

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 16, 2020 5:37 pm|    Updated: October 16, 2020 5:47 pm

An Images

শুভঙ্কর বসু: টিটাগড়ের বিজেপি কাউন্সিলর মণীশ শুক্লা খুনের (Manish Shukla murder case) তদন্তে এখনও সিআইডি’র উপরই ভরসা রাখছে কলকাতা হাই কোর্ট (Calcutta High Court)। হত্যাকাণ্ডে সিবিআই তদন্তের আবেদন জানিয়ে বিজেপির দায়ের করা মামলার শুনানি ছিল শুক্রবার। বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে তদন্তের বিস্তারিত রিপোর্ট জমা করেন সিআইডি আধিকারিকরা। সেই রিপোর্ট দেখে বিচারপতিরা জানান যে আপাতত রাজ্য গোয়েন্দা সংস্থার তদন্ত চলুক। পরে এই তদন্তে কোনও ত্রুটি দেখা গেলে সিবিআই তদন্তের কথা ভাবা যাবে। আগামী ১০ নভেম্বর মামলাটির পরবর্তী শুনানি।

সপ্তাহ দুই আগে এক রবিবার সন্ধেবেলা টিটাগড়ের দলীয় কার্যালয়ের সামনে আততায়ীদের গুলিতে খুন হন টিটাগড় পুরসভার বিজেপি কাউন্সিলর মণীশ শুক্লা। গোড়া থেকেই এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত সিবিআইকে দিয়ে করানোর দাবি তুলেছিল বিজেপি নেতৃত্ব। রাজ্য পুলিশ বা সিআইডি’র তদন্তে নিরপেক্ষতার প্রশ্নে সিবিআইয়ের দাবি জানান কৈলাস বিজয়বর্গীয়, অর্জুন সিংরা।

[আরও পড়ুন: পুজোয় ভিড় নিয়ন্ত্রণ কীভাবে, মুখ্যসচিব-স্বরাষ্ট্রসচিবের থেকে গাইডলাইন চাইল হাই কোর্ট]

বিজেপি মহিলা মোর্চা নেত্রী তথা আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল নিজে মণীশের পরিবারে তরফে সিবিআই তদন্তের আরজি জানিয়ে কলকাতা হাই কোর্টে মামলা দায়ের করেন। তাঁর বক্তব্য যে মণীশের পরিবার ক্রমাগত হুমকির মুখে পড়ছে। তাই পরিবারের সদস্যরা নিজেরা আদালতের দ্বারস্থ হতে ভয় পাচ্ছেন। যেহেতু মণীশ শুক্লা নিজেও একজন আইনজীবী ছিলেন, তাই সেদিক থেকে আইনজীবী হিসেবে তিনি একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছেন। প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল নিজেই এই মামলা লড়ছেন।

[আরও পড়ুন: পটাশপুরে মৃত বিজেপি কর্মীর ফের ময়নাতদন্ত, করতে হবে ভিডিওগ্রাফি, নির্দেশ কলকাতা হাই কোর্টের]

এই মামলার শুনানি ছিল আজ কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে। এদিন সিআইডি তদন্তের অগ্রগতি নিয়ে একটি রিপোর্ট জমা দেয় আদালতে। তা খতিয়ে দেখে সিআইডি তদন্তেই আস্থা রেখেছেন বিচারপতিরা। তবে যদি সিআইডি তদন্তে কোনও ত্রুটি ধরা পড়ে, তাহলে সিবিআইয়ের কথা ভাবা হতে পারে। ১০ তারিখ মামলার পরবর্তী শুনানি। এই সময়ের মধ্যে তদন্ত কতদূর এগোল, তার বিস্তারিত রিপোর্ট দিতে হবে আদালতে। ফলে বিজেপি এখনও সিবিআইয়ের আশা দেখছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement