১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে শিশুদের ঢুকতে না দেওয়ার অভিযোগ, চাঞ্চল্য দমদমে

Published by: Shammi Ara Huda |    Posted: August 16, 2018 3:31 pm|    Updated: August 16, 2018 3:31 pm

Children barred from entering I-Day celebration venue at Dum Dum

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আর্থিক নয়ছয়ের অভিযোগ তুলে আবাসন কমিটির প্রাক্তন সম্পাদকের সঙ্গে বর্তমানের আইনি লড়াই। এর জেরে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান থেকে দুই শিশুকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগের তির বর্তমান আবাসন কমিটির দিকে। ন্যক্কারজনক ঘটনাটি ঘটেছে দমদমের ইটালগাছা রোডের কাত্যায়নী আবাসনে। শিশুদের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান থেকে বের করে দেওয়ার ঘটনায় অনেকেই নিন্দায় সরব হলেও আবাসন কমিটির ভয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে রাজি হননি।

[সাতসকালে শহরে দুষ্কৃতী তাণ্ডব, নারকেলডাঙা মেন রোডে গুলিবিদ্ধ যুবক]

জানা গিয়েছে, কাত্যায়নী আবাসনের কার্যকরী কমিটির প্রাক্তন সভাপতি অরুণ কুমার সামন্ত। তিনি নিজেও ওই আবাসনেই থাকেন। চলতি বছরে আবাসন কমিটির নির্বাচনে হেরে যান। স্বভাবতই তাঁর জায়গায় নতুন সম্পাদক নির্বাচিত হন। এরপরেই আর্থিক দুর্নীতি শুরু হয় বলে অভিযোগ। অভিযোগ ওঠে বর্তমান আবাসন কমিটি বাসিন্দাদের টাকা নিয়ে নয়ছয় করছে। খেয়াল খুশিমতো টাকা পয়সা খরচ করা হচ্ছে। আবাসন নিয়ে কোনওরকম গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হলেও তা বাসিন্দাদের জানানো হচ্ছে না। বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। এই কাজে অরুণ সামন্ত পাশে পেয়ে যান আবাসনের আর এক বাসিন্দা দুর্জয় সরকারকে। বর্তমান আবাসন কমিটির আর্থিক কেলেঙ্কারির বিরুদ্ধে সরব হয়ে দু’জনেই রোষের মুখে পড়েন বলে অভিযোগ। জল ও বিদ্যুতের লাইন কেটে দেওয়া থেকে শুরু করে আরও নানারকম হুমকিও দেওয়া হয় দুটি পরিবারকে।

ঘটনা নাটকীয় মোড় নেয় স্বাধীনতা দিবসে। এদিন সকালে আবাসনের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে মেয়েকে পাঠান অরুণ সামন্তের স্ত্রী অর্পিতাদেবী। তাঁর অভিযোগ, অনুষ্ঠান প্রাঙ্গন থেকে মাইকে ঘোষণা করা হয়, যাদের নাম ডাকা হচ্ছে না, তাঁরা অনুষ্ঠানে আসবেন না। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মেয়ের নাম ছিল। সেই নামও কেটে দেয় আবাসন কমিটি। এই ঘটনায় কাঁদতে কাঁদতে ফিরে আসে শিশুটি। একই অবস্থা দুর্জয়বাবুর পরিবারেও তাঁদের বাচ্চাকেও স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। তবে এখানেই শেষ নয়, সামনেই দুর্গাপুজো। এই দুই পরিবারকে আবাসনের পুজো থেকে ব্রাত্য রাখার হুমকি দেওয়া হয়েছে। লিখিত কিছু না জানালেও পুজোতে অংশ নিতে পারবেন না, মুখে বলে দেওয়া হয়েছে।

[ফের সৌজন্যের নজির, প্রয়াত সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে মুখ্যমন্ত্রী]

এদিকে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে শিশুদের ঢুকতে না দেওয়ার ঘটনায় নিন্দায় সরব হয়েছেন অন্য বাসিন্দারাও। তবে বর্তমান আবাসন কমিটির ভয়ে কেউই মুখ খুলতে চাইছেন না। বিষয়টি নিয়ে কমিটির বর্তমান সভাপতি কল্যাণ কুমার রায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি প্রায় পালিয়ে যান।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে