BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘আমি করোনা এক্সপ্রেস বলিনি, মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা হয়েছে’, কটাক্ষের জবাব মমতার

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 10, 2020 5:07 pm|    Updated: June 10, 2020 5:47 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “করোনা এক্সপ্রেস” মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে, বুধবার সাংবাদিক বৈঠক থেকে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। বললেন, সাধারণ মানুষ পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানো প্রসঙ্গে ওই মন্তব্য করছেন, সেকথাই বোঝাতে চেয়েছিলেন তিনি।পাশাপাশি, এদিনও প্রত্যেককে মাস্ক পরার পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

বুধবার বিকেলে সাংবাদিক বৈঠকে ট্রেন চালানো প্রসঙ্গে আলোচনা করার সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমি কিন্ত কোনও দিনই করোনা এক্সপ্রেস বলিনি। বলেছি সাধারণ মানুষ বলছে। ভুল ব্যাখ্যা হয়েছে।” এরপরই পরিযায়ীদের দুর্দশা প্রসঙ্গে কেন্দ্রকে তোপ দেগে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “লকডাউনের আগেই যদি শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর ব্যবস্থা করা হত, তাহলে এভাবে তাঁদের প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে ফিরতে হত না। এত সমস্যাও ভোগ করতে হত না।” পাশাপাশি, কম সংখ্যক শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন চালিয়ে পরিযায়ীদের বিপদের মুখে ঠেলে দেওয়া হয়েছে, এই অভিযোগ তুলেও এদিন কেন্দ্রকে একহাত নিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, “এই রোগ থেকে বাঁচতে দূরত্ব বজায় রাখা প্রয়োজন। তাহলে কেন বেশি ট্রেন না চালিয়ে, কম সংখ্যক ট্রেনে গাদাগাদি করে পাঠানো হল শ্রমিকদের? কেন ভাবা হল না তাঁদের কথা?”

[আরও পড়ুন: পঞ্চায়েতের ব্যর্থতা তুলে ধরে দলের মধ্যেই চক্ষুশূল মহুয়া, অসন্তুষ্ট নেতা-কর্মীরা]

এদিনের বৈঠক থেকে ফের মুখ্যমন্ত্রী বললেন যে, বাংলা থেকে কোনও শ্রমিক ফিরতে চাইছেন না, কারণ বাংলায় তাঁরা সুরক্ষিত। সেইসঙ্গেই প্রশ্ন তুললেন, বাংলা যখন ভিনরাজ্যের শ্রমিকদের সমস্ত সুবিধা দিল, তখন বাইরে থাকা বাংলার শ্রমিকরা কেন সেই সুবিধা পেলেন না? আশ্বাস দিলেন সকলের পাশে থাকা। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই পরিযায়ী প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর ‘করোনা এক্সপ্রেস’ মন্তব্যকে কেন্দ্র করে বিতর্ক শুরু হয়েছিল রাজনৈতিক মহলে। বলা হয়েছিল, পরিযায়ীদের অপমান করতেই এহেন মন্তব্য। যার জেরে কটাক্ষের শিকার হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন সেই ঘটনার ব্যাখ্যাই দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

[আরও পড়ুন: শিকেয় সামাজিক দূরত্ব! লঞ্চ পরিষেবা শুরুর দিনেই গায়ে গা ঘেঁষে অফিসমুখো যাত্রীরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement