BREAKING NEWS

১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  শনিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আশানুরূপ ফল না হলেও রাজ্য দপ্তরের বাইরে ফাটল বাজি, ক্ষুব্ধ বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্ব

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 25, 2019 4:50 pm|    Updated: October 25, 2019 4:55 pm

Dilip Ghosh slams celebration after Maharashtra-Haryana blow

ফাইল ফোটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানা বিধানসভা নির্বাচনে আশানুরূপ ফল হয়নি বিজেপির। অন্য রাজ্যগুলির ৫১টি বিধানসভা এবং দুটি লোকসভার উপনির্বাচনেও বেশি আসন গিয়েছে বিরোধীদের ঝুলিতে। পরিস্থিতি যা তাতে লোকসভার থেকে বিজেপির ফল খারাপ হয়েছে বলে জানাচ্ছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। ফলে কিছুটা হলেও চিন্তিত হয়ে পড়েছে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় সরকার গড়তে ব্যস্ত থাকায় তারা বিষয়টি নিয়ে এখনই আলোচনা করতে চাইছে না। কিন্তু, এই দুটি রাজ্যে সরকার গঠনের পর দলের ফল নিয়ে কাটাছেঁড়া হবে বলেই জানাচ্ছেন অনেক নেতা। এই রকম অবস্থায় রাজ্য দপ্তরের সামনে তুবড়ি ফাটিয়ে জয় উদযাপনের ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়েছে বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্ব। দলের অন্দর মহলে এই ঘটনার সমালোচনাও শুরু হয়েছে বলে খবর।

[আরও পড়ুন: অনলাইনে আর্থিক প্রতারণার শিকার? আপনার খোয়া যাওয়া টাকা ফেরত দেবে ‘সাইবার সেফ’]

ঘটনাটির সূত্রপাত হয় বৃহস্পতিবার বিকেলের দিকে, মহারাষ্ট্রে বিজেপি ও শিব সেনা জোটের জয় সুনিশ্চিত হতেই আনন্দে মেতে ওঠেন বঙ্গ বিজেপির রাজ্য দপ্তরে হাজির থাকা নেতা-কর্মীরা। এরপর রাজ্য কমিটির এক সদস্য নারায়ণ চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে কয়েকজন নেতা-কর্মী মুরলিধর লেনের দপ্তরের সামনের রাস্তায় তুবড়ি ফাটাতে শুরু করেন। দলের নামে জয়ধ্বনি দিয়ে রীতিমতো আনন্দ উৎসবে মেতে উঠতে দেখা যায় তাঁদের। আর এই বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না অনেক বর্ষীয়ান নেতা। তাঁদের কথায়, এভাবে লোক না হাসালেই ভাল হত। এই ধরনের বালখিল্য আচরণে দলের ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

[আরও পড়ুন:দ্রুত নাগরিকত্ব বিল পাসের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীকে ১ কোটি চিঠি পাঠাচ্ছে বঙ্গ বিজেপি]

বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, গতকালের এই ঘটনার পর রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়েছেন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। অতি উৎসাহী হয়ে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট না করার নির্দেশ দিয়েছেন। তাঁর মতে, কেউ কেউ আছেন যারা দলটাকে বোঝেন না। বুদ্ধি দিয়ে পরিস্থিতি বিচার করে দেখেন না। অন্য রাজ্যের ফলাফলের জন্য আনন্দ পেলেও বাজি ফাটানোর পক্ষপাতী নই আমি। নিজের রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পরেই বাজি ফাটিয়ে উৎসব করতে চাই। কিন্তু, অনেকে এটা বোঝেন না। আর তাতেই সমস্যা হয়। যারা এই ধরনের কাণ্ড ঘটিয়েছেন তাঁদের বলব, নিজের এলাকায় গিয়ে দলকে শক্তিশালী করার চেষ্টা করুন। তাতে রাজ্যের মানুষের পাশাপাশি দলেরও ভাল হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে