৭  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কলকাতায় ঝাড়খণ্ডের আইনজীবী গ্রেপ্তারিতে নয়া মোড়, টাকা লেনদেনে জড়িত ইডি অফিসার!

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 8, 2022 12:39 pm|    Updated: August 8, 2022 12:42 pm

ED officer involved in monetary transaction with Jharkhand lawyer arrested in Kolkata, Kolkata Police will interrogate him | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ: লক্ষাধিক টাকা-সহ কলকাতা থেকে গ্রেপ্তার হওয়া ঝাড়খণ্ডের (Jharkhand) আইনজীবীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এবার চাঞ্চল্যকর তথ্য হাতে পেলেন তদন্তকারীরা। কলকাতা পুলিশ সূত্রে খবর, তাঁর সঙ্গে টাকা লেনদেনে যুক্ত ছিলেন ইডির (ED) এক আধিকারিক! পুলিশি জেরার মুখে নাকি ধৃত আইনজীবী রাজীব কুমার সেই তথ্য জানিয়েছেন। এবার তাঁর থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ডেপুটি ডিরেক্টর (Deputy Director)পদমর্যাদার ওই ইডি অফিসারকে এবার জিজ্ঞাসাবাদ করতে চলেছেন তদন্তকারীরা। তাঁকে নোটিসও পাঠানো হয়েছে।

জানা গিয়েছে, ইডির ওই ডেপুটি ডিরেক্টরের নাম সুবোধ কুমার। তিনি এই মুহূর্তে ওড়িশায় কর্মরত। ঝাড়খণ্ডে পোস্টিং থাকাকালীন তিনি আর্থিক লেনদেন নিয়ে মধ্যস্থতা করেছিলেন বলে অভিযোগ। রাঁচির আইনজীবী রাজীব কুমারকে গ্রেপ্তারির পর তাঁকে টানা জেরায় এই তথ্য পেয়েছেন বলে দাবি কলকাতা পুলিশের তদন্তকারীদের। এরপরই সুবোধ কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদের সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশ।

[আরও পড়ুন: বিরল ঘটনা কমনওয়েলথ ক্রিকেট ফাইনালে, কোভিড পজিটিভ হয়েও খেলতে নামলেন টালিয়া]

কলকাতা পুলিশ (Kolkata Police) সূত্রে খবর, সুবোধ কুমারকে এই মামলায় জেরার জন্য নোটিস পাঠানো হয়েছে। তিনি এই মুহূর্তে ওড়িশায় রয়েছেন। কলকাতায় ডাকা হয়নি তাঁকে। ওড়িশায় (Orissa) নিজের কর্মস্থলেই তাঁকে থাকতে বলা হয়েছে। সেখানে গিয়েই কলকাতা পুলিশের একটি তদন্তকারী দল জেরা করবে মঙ্গলবার। সেখান থেকে এই আর্থিক প্রতারণা মামলার কোনও কিনারা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: আধুনিক যুগের ‘সহমরণ’! শোকে স্বামীর চিতার কাছেই গায়ে আগুন দিয়ে আত্মঘাতী স্ত্রী]

গত রবিবার রাতে প্রতারণার অভিযোগে কলকাতার (Kolkata) এক শপিং মল থেকে ঝাড়খণ্ডের আইনজীবী রাজীব কুমারকে গ্রেপ্তার করে হেয়ার স্ট্রিট থানার পুলিশ। তাঁর কাছ থেকে উদ্ধার হয় প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা। তিনি রাঁচির বাসিন্দা। ঝাড়খণ্ডে বিভিন্ন সময় সরকারের বিরুদ্ধে বহু জনস্বার্থ মামলা করেছেন তিনি। মামলা করেছেন ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের বিরুদ্ধেও। এই ঘটনার ঠিক আগেই হাওড়ার পাঁচলা থেকে ঝাড়খণ্ডের তিন কংগ্রেস বিধায়ককে বিপুল অর্থ-সহ গ্রেপ্তার করেছিল রাজ্য পুলিশ। ভিনরাজ্য থেকে শহরে এত টাকা কীভাবে আসছে, সেই টাকা কোন কাজে লাগছে, সেসবের কিনারা করতেই লাগাতার জেরা করেছে পুলিশ। এবার সেই মামলায় ইডি অফিসার সুবোধ কুমারের যোগসূত্র মেলায় মামলা নয়া মোড় নিল।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে