২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মেয়র পদে তবে কি ফিরহাদ হাকিম? মমতার পদক্ষেপে নয়া জল্পনা

Published by: Tanujit Das |    Posted: November 21, 2018 5:53 pm|    Updated: November 21, 2018 6:36 pm

 Firhad Hakim the next Kolkata Mayor!

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্নেহের ‘কানন’কে হারিয়ে তবে কি এবার পছন্দের ‘ববি’র উপরেই ভরসা রাখছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়? তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরে এবং গোটা রাজনৈতিক মহলে এখন এটাই লাখ টাকার প্রশ্ন৷ ব্যক্তিগত সম্পর্কে টানাপোড়েনের জেরে মঙ্গলবার মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ এরপর, মেয়র পদেও তাঁর ইস্তফা নিয়েও গুঞ্জন চলছে৷ শোনা যাচ্ছে, শোভনপর্বে ইতি পড়লে, মহানাগরিকের চেয়ারে এবার কোনও হেভিওয়েট মন্ত্রীকে বসাতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী এবং দৌঁড়ে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছেন পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম৷

[চরিত্র বদলে আরও বিপজ্জনক ডেঙ্গু, মৃতের রক্তে মিলল স্টেজ ২ ভাইরাস]

নবান্ন সূত্রে খবর, পুর দপ্তর ও পুরসভার কাজ সম্পর্কে অভিজ্ঞ এমন একজনকে মেয়রের পদে বসাতে চাইছেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ অন্যান্যদের  নিরিখে সেই যুক্তিতে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন ফিরহাদ হাকিম৷ আবার উঠে আসছে পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের নামও। জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার বিধানসভায় পুরআইন সংশোধনী বিল পেশ করতে চলেছে রাজ্য সরকার৷ বিল পাশ হলেই তা পাঠানো হবে রাজ্যপালের কাছে৷ রাজ্যপালের স্বাক্ষর পেলেই তা আইনে পরিণত হবে৷ বর্তমান পুর আইন অনুযায়ী, মেয়র বা মহানাগরিক নির্বাচিত হতে গেলে কলকাতা পুরসভার কোনও ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হওয়া বাধ্যতামূলক৷ এই আইনে সংশোধনী এনে, মন্ত্রীদের মেয়র হওয়ার ক্ষেত্রে কোনও বাধা রাখতে চাইছে না রাজ্য সরকার৷ সেক্ষেত্রে আগামী ছ’মাসের মধ্যে কলকাতা পুরসভার কোনও ওয়ার্ড থেকে জিতে আসতে হবে ওই মন্ত্রীকে৷

কেবল ফিরহাদ হাকিম নন, মেয়র পদে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ইস্তফার জল্পনা প্রবল হওয়ার পর থেকেই, নয়া মেয়র পদে উঠে আসে আরও কয়েকজনের নাম৷ রাজনৈতিক মহলে জল্পনা, দুই মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমার ও অতীন ঘোষ এবং মালা রায়ের মধ্যে কোনও একজনকে মেয়র করতে পারেন দলনেত্রী৷ তবে পুর আইনে বদলের খবর প্রকাশ্যে আসতেই সেই জল্পনার যবনিকা পতন হয়েছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷ তাঁদের মতে, মমতার এই পদক্ষেপ থেকেই স্পষ্ট যে কোনও মন্ত্রীকেই মেয়র করতে চাইছেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান৷ পাশাপাশি, আগামিকাল বিকালে ‘উত্তীর্ণ’ সভাঘরে কলকাতা পুরসভার কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে বসতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেখানেই এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বলে সূত্রের খবর৷ 

[অচলাবস্থা কাটাতে জরুরি বৈঠক পুরসভায়, পরবর্তী মেয়র নিয়ে জল্পনা]

ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে ব্যস্ত থাকায় মন্ত্রিত্বের কাজে এবং কলকাতা পুরসভার কাজে মন দিতে পারছিলেন না শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ যা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই তাঁর উপর চটে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ যার বহিঃপ্রকাশ ঘটে মঙ্গলবার৷ এদিন প্রথমে বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী ভর্ৎসনার মুখে পড়েন তিনি৷ তাঁকে চরম হুঁশিয়ারি দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সূত্রের খবর, দপ্তর চালাতে না পাড়লে ছেড়ে দেওয়ারও নির্দেশ দেওয়া হয় শোভনকে ৷ এরপরেই মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা দেন তিনি৷ তাঁর মেয়র পদে ইস্তফা দেওয়া নিয়েও শুরু হয় জল্পনা৷ তৃণমূলের অন্দরে গুঞ্জন ছড়ায় বুধবার তাঁকে মেয়র পদও ছাড়তে বলেছেন দলনেত্রী৷ কিন্তু, বুধবার ইস্তফা দেননি মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার ইস্তফা দিতে পারেন তিনি৷স্বশরীরে না এসে কোনও দূত মারফৎ বা ইমেলে ইস্তফাপত্র পাঠিয়ে দিতে পারেন তিনি৷ যদি, একান্তই তিনি ইস্তফা না দেন তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে অনাস্থা আনারও চিন্তাভাবনা করছে তৃণমূল। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে