১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: যাদবপুর কাণ্ডে অসুস্থ উপাচার্য ও সহ-উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করলেন আচার্য তথা রাজ্যপাল৷ শনিবার সকাল ১০টা নাগাদ ঢাকুরিয়ার একটি হাসপাতালে উপাচার্য সুরঞ্জন দাস ও সহ-উপাচার্য প্রদীপ ঘোষের সঙ্গে দেখা করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়৷ তাঁদের সঙ্গে একান্তে কথা বলেন৷ আগামিদিনে সুষ্ঠু ভাবে বিশ্ববিদ্যালয় চালানোর পরামর্শ দেন তিনি৷

[ আরও পড়ুন: সংগঠন চাঙ্গা করতে ফের রাজ্যে মোহন ভাগবত, যোগ দেবেন সমন্বয় বৈঠকে ]

হাসপাতাল সূত্রে খবর, একান্তে প্রায় ১০ মিনিট যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাসের সঙ্গে কথা বলেন জগদীপ ধনকড়৷ তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজ নেন৷ চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেন৷ বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র যাওয়াকে কেন্দ্র করে, অশান্তিকর পরিবেশ তৈরি হয়েছে, সেই জট কাটানোরও আশ্বাস দেন রাজ্যপাল৷ প্রায় আধ ঘণ্টা ধরে হাসপাতালে উপাচার্য ও সহ-উপাচার্যের সঙ্গে কথা বলার পর সেখান থেকে বেরিয়ে যান জগদীপ ধনকড়৷ সূত্রের খবর, আজ অর্থাৎ শনিবারই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হবে উপাচার্য ও সহ-উপাচার্যকে৷ আগামী সাতদিন তাঁদের বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা৷

[ আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশে রাজীবের বাড়িতে সিবিআই, তলব চার ঘনিষ্ঠকে ]

বৃহস্পতিবার অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের ‘নবীনবরণ’ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে৷ ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সেখানকার বামপন্থী পড়ুয়ার হাতে নিন্দাজনকভাবে হেনস্তা হতে হয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে। দীর্ঘক্ষণ অবরুদ্ধ করে রাখা হয় তাঁকে। তাকে নিগ্রহ করা হয়৷ অশালীন ভাষায় তাঁর উদ্দেশে গালিগালাজও করা হয়। পালটা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের ঘরে ভাঙচুর চালায় এবিভিপি ও দুর্গা বাহিনী৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যর্থ হন, উপাচার্য সুরঞ্জন দাস৷ অবশেষে রাজ্যপাল তথা আচার্য জগদীপ ধনকড় গিয়ে প্রায় সাড়ে ছ’ঘণ্টা পর বাবুল সুপ্রিয়কে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন৷ এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এখন উত্তপ্ত রাজ্য রাজনীতি৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং