BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কলকাতার পুজোয় কার্তিক রূপে ফিরবেন সুশান্ত সিং রাজপুত, কোন মণ্ডপে গেলে দেখতে পাবেন?

Published by: Sulaya Singha |    Posted: September 12, 2020 9:41 pm|    Updated: September 12, 2020 9:41 pm

An Images

সুলয়া সিংহ: কখনও ব্যোমকেশ বক্সী তো কখনও মহেন্দ্র সিং ধোনি। বড়পর্দায় নানা চরিত্রে ধরা দিয়েছেন সুশান্ত সিং রাজপুত। আর প্রতিবারই দর্শকদের মন কেড়েছে তাঁর অনবদ্য অভিনয়। বেঁচে থাকলে হয়তো আরও নতুন নতুন চরিত্রে ধরা দিতেন অভিনেতা। আর ঠিক এখান থেকেই জন্ম নেয় ভাবনাটা। সুশান্তের (Sushant Singh Rajput) সুন্দর চেহারা, সুঠাম দেহ যেন কার্তিক ঠাকুরের কথাই মনে করিয়ে দিয়েছে শিল্পী মানস রায়কে। তাই এবার কলকাতার পুজো অভিনব পন্থায় শ্রদ্ধা জানাতে চলেছে সুশান্ত সিং রাজপুতকে।

বলিউডে চলতি বছর বলিউডের সবচেয়ে আলোচ্য বিষয় সুশান্তের মৃত্যু। তাঁর আকস্মিক প্রয়াণ নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা দেশকে। তাঁর সুবিচারে সরব অগণিত অনুরাগী। আর ঠিক এই আবহেই দুর্গা পুজোর সঙ্গে সুশান্তের নাম জড়িয়ে তাঁকে অনন্য সম্মান জানাচ্ছে কেষ্টপুরের মাস্টারদা স্মৃতি সংঘ ক্লাব। কীভাবে? মা দুর্গার ছেলে অর্থাৎ কার্তিকের জায়গায় ভেসে উঠবে সুশান্তের মুখ। তাঁর আদলেই তৈরি হচ্ছেন কার্তিক। এবার অতিমারীর কথা মাথায় রেখে একটু অন্যভাবে পুজো করার ভাবনা চিন্তা এই পুজো উদ্যোক্তাদের। পুজো হচ্ছে উপলক্ষ, পাশে দাঁড়ানোই প্রধান লক্ষ্য। বলা যেতে পারে এটাই এবারের থিম। বিরাট জাঁকজমকের পথে না হেঁটে বরং মৃতশিল্পী, পটশিল্পী ও হস্তশিল্পীদের কাজ দিয়ে সাজিয়ে তোলা হবে মণ্ডপ। তাঁদের হাতের জাদুতেই করোনা আবহে সাজবে মায়ের মণ্ডপ। আর কলকাতার পুজোর সঙ্গে যুক্ত হয়ে উপকৃত হবেন সেই শিল্পীরাও।

Sushant
ছবি অমিত ঘোষ

[আরও পড়ুন: বিমান সফরে জারি আরও একগুচ্ছ বিধিনিষেধ, জেনে নিন দমদম বিমানবন্দরের নিয়মাবলি]

এবার খানিকটা অজান্তেই হাজির শরৎকাল। গৃহবন্দি অবস্থায় আকাশে পেঁজা তুলোর মতো মেঘ কিংবা রাস্তার দু’ধারে কাশফুলের শোভা এখনও অনেকেই দেখে উঠতে পারেননি। অতিমারী পালটে দিয়েছে কুমোরটুলির ছবিটাও। সেখানেও এবার ভিড় নেই। তাই বলে কি উমা বাপের বাড়ি ফিরবে না? এমনটা তো আর হয় না। তিথি মেনেই হাজির হবে সে। আর তাকে বরণ করে নিতে অল্প হলেও নিজের মতো করেই সেজে উঠছে কলকাতা। কাজ শুরু করে দিয়েছে মাস্টারদা স্মৃতি সংঘও। এবার ৫১ তম বর্ষে নিঃসন্দেহে তাঁদের আকর্ষণ হঠাৎ হারিয়ে যাওয়া সুশান্ত। ক্লাবের সাংস্কৃতিক সম্পাদক শুভঙ্কর নাথের কথায়, সুশান্তকে দেখলে কার্তিক ঠাকুরের কথাই যেন পড়ে যায়। সেই উজ্জ্বল চোখ, ঢেউ খেলানো চুল। তাই ময়ূরের উপর তীর-ধনুক হাতে বেশ মানাবে তাঁকে।

শনিবারই সুশান্তকে শ্রদ্ধা জানিয়ে পটে তাঁর চিত্র আঁকা শুরু করেছেন শিল্পী। পুজোর (Durga Puja) উদ্বোধনে সুশান্তের পরিবারকেও আমন্ত্রণ জানানোর পরিকল্পনা রয়েছে উদ্যোক্তাদের। বিহারের রাজীবনগরে ফেরা হয়নি প্রাণোবন্ত ছেলেটির। তবে দুর্গাপুজোর হাত ধরে তিলোত্তমায় আসছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: পিতৃপক্ষেই মায়ের বোধন, করোনা আবহে দাস বাড়িতে শুরু দুর্গাপুজো]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement