BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পুলিশ দিবসে ঢেলে সাজানো হল লালবাজার, এবার জায়ান্ট স্ক্রিনে দেখা যাবে আড়াই হাজার CCTV-র ফুটেজ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: September 9, 2020 11:47 am|    Updated: September 9, 2020 11:47 am

An Images

অর্ণব আইচ: লালবাজারের (Lalbazar) নতুন কন্ট্রোল রুমে ঢেলে সাজানো হল ১০০ ডায়াল সিস্টেম। জায়েন্ট স্ক্রিনে ফুটে উঠছে কলকাতার বিভিন্ন জায়গায় লাগানো আড়াই হাজার সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ। আইনশৃঙ্খলাজনিত সমস্যা নিয়ন্ত্রণ করার জন্য ড্রোনে তোলা ফুটেজও ফুটে উঠবে জায়েন্ট স্ক্রিনে। মঙ্গলবার পুলিশ দিবস উদযাপনের দিনেই লালবাজারের মেন বিল্ডিংয়ে চালু হল কলকাতা পুলিশের নতুন কন্ট্রোলরুম।

পুলিশ জানিয়েছে, লালবাজারের নতুন কন্ট্রোল রুমে অত্যাধুনিক কিছু বৈশিষ্ট্য নিয়ে আসা হয়েছে। বহু কাজই ডিজিটাল পদ্ধতিতে হবে। এর ফলে শহরবাসীদের অনেক বেশি সুবিধা হবে। বিশেষ করে ১০০ ডায়াল পদ্ধতিটি সম্পূর্ণ ডিজিটাল করা হয়েছে। লালবাজারের এক আধিকারিক জানান, কেউ কোনও বিপদ বা সমস্যায় পড়লে ১০০ ডায়াল অথবা হেল্পলাইনে ফোন করলে অপারেটর সেই ফোন ধরবেন। গুরুত্ব বুঝে সঙ্গে সঙ্গেই সেই ফোন পাঠিয়ে দেওয়া হবে কল ডিস্প্যাচ্যারের কাছে। ডিস্প্যাচ্যাইংয়ের দায়িত্ব থাকা পুলিশকর্মী মুহূর্তের মধ্যে রাস্তায় ডিউটিতে থাকা মোবাইল ভ্যানকে সেই বিষয়টি জানাবেন। কন্ট্রোল রুমের সঙ্গে সংযোগকারী এই মোবাইল ভ্যানে রয়েছে এলসিডি স্ক্রিন। সেই স্ক্রিনে ফুটে উঠবে যে জায়গায় সমস্যা হয়েছে, তার ঠিকানা ও বিস্তারিত তথ্য। ফোন করেও জানিয়ে দেওয়া হবে মোবাইল ভ্যানের ডিউটিতে থাকা পুলিশ আধিকারিককে। লালবাজারে ফোন আসার কয়েক মিনিটের মধ্যে যাতে পুলিশের গাড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছতে পারে, সেই ব্যবস্থা করা হয়েছে। একই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থানাকেও বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে। পুরোটাই ডিজিটাল পদ্ধতিতে রেকর্ড করার থাকবে। সারা শহরের উপর নজরদারির জন্য কন্ট্রোলরুমে বসানো হয়েছে জায়েন্ট স্ক্রিন।প কলকাতার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে থাকা আড়াই হাজার সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ ফুটে উঠছে এই স্ক্রিনে। এ ছাড়াও অপরিসর রাস্তা ও গলিতে থাকা সিসিটিভির ফুটেজও ওই বড় স্ক্রিনে ভেসে উঠবে। এর ফলে কোথাও কোনও অস্বাভাবিকতা চোখে পড়লে সঙ্গে সঙ্গে কন্ট্রোলরুম সংশ্লিষ্ট থানাকে বিষয়টি জানাতে পারবে। আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে সময় আকাশপথে তোলা ড্রোনের ভিডিও ফুটেজও জায়েন্ট স্ক্রিনে ভেসে উঠবে। কলকাতা পুলিশের ব্যাক প্যাক টিম ঘটনার ভিডিও তুলে সরাসরি পাঠায়। সেই ভিডিও ফুটেজগুলি দেখা যাবে জায়েন্ট স্ক্রিনে। এর ফলে আইন ও শৃঙ্খলা রক্ষার সময় যদি পুলিশ বা সাধারণ মানুষ আক্রান্ত হন, সেই ক্ষেত্রে অভিযুক্তদের সহজে শনাক্ত করা যাবে। কোনও বড় ঘটনার ক্ষেত্রে ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশ কর্মীদের আরও ভালভাবে নির্দেশ দিতে পারবে কন্ট্রোলরুম। এ ছাড়াও নবান্ন থেকে শুরু করে কলকাতার প্রত্যেকটি হাসপাতাল, শপিং মল, মেট্রো স্টেশনের ফুটেজও সরাসরি যাতে কন্ট্রোলরুমের স্ক্রিনে দেখা যায়, সেই ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর ফলে নাশকতার হাত থেকে শহরকে বাঁচানোও পুলিশের পক্ষে সহজ হবে।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৩ হাজারেরও বেশি, উদ্বেগের মধ্যেও স্বস্তি দিচ্ছে সুস্থতার হার]

এদিন কলকাতা পুলিশের ৯টি ডিভিশন-সহ ১৯টি বিভাগের মোট ৯৫ জন কোভিড যোদ্ধা পুলিশের হাতে শংসাপত্র তুলে দেন বিশেষ পুলিশ কমিশনার জাভেদ শামিম। কলকাতা পুলিশের সাত মৃত করোনা যোদ্ধার পরিবারের লোকদের হাতে তুলে দেওয়া হয় চাকরির নিয়োগপত্র। কলকাতা পুলিশে নতুন নয় জন ডিসির পদ তৈরি হয়েছে। নয়জন অ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার পদোন্নতি পেয়ে ডেপুটি কমিশনার হবেন। সূত্রের খবর, মূলত ডিভিশনগুলিতেই কর্তব্যরত অবস্থায় থাকবেন তাঁরা। এদিন বাঁশদ্রোনি থানা ও গড়িয়া ট্রাফিক গার্ডের নতুন বাড়ির উদ্বোধন হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: অভিষেককে কম্যান্ডো কভার কেন? কঙ্গনার নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তৃণমূলকে পালটা বাবুলের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement