BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউন ভেঙে রেড রোডে বিক্ষোভ কর্মসূচি, গ্রেপ্তার বিমান-সুজনরা

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: April 18, 2020 3:57 pm|    Updated: April 18, 2020 5:34 pm

An Images

ক্ষীরোদ ভট্টাচার্য: লকডাউন ভেঙে কেন্দ্র-রাজ্য বিরোধী বিক্ষোভ দেখালেন রাজ্য বাম নেতৃত্ব। আর তার জেরেই গ্রেপ্তার হতে হল তাঁদের। বামেদের অভিযোগ, পুলিশই অতি সক্রিয় হয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নিয়ম ভেঙে তাঁদের গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশের পালটা দাবি, বারবার সরে যেতে বলা সত্ত্বেও বিক্ষোভকারীরা লকডাউন ভাঙতে অনড় ছিল। তাই এই পদক্ষেপ।

রাজ্য ও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগে শনিবার রেড রোডে বিক্ষোভ কর্মসূচি ছিল বামেদের। সরকারি নির্দেশে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিক্ষোভ কর্মসূচি ছিল তাদের। কিন্তু লকডাউনের বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে বাম নেতাদের গ্রেপ্তার করল কলকাতা পুলিশ। যে গাড়িতে করে তাঁরা রেড রোডে এসেছিলেন সেগুলি বাজেয়াপ্ত করা হয়। বাম নেতৃত্বকে গ্রেপ্তার করে লালবাজারে নিয়ে যাওয়া হয়। বামেদের অভিযোগ, যে স্বাস্থ্যবিধি ও লকডাউনের নিয়ম লঙ্ঘনের অভিযোগে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হল সেই নিয়মই ভঙ্গ করেছে পুলিশ। সামাজিক দূরত্বের তোয়াক্কা না করে নেতা-নেত্রীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তি করা হয় বলে অভিযোগ।

[আরও পড়ুন: এবার করোনার থাবা সেন্ট্রাল মেডিক্যাল স্টোরে, বেলেঘাটা আইডিতে ভরতি স্বাস্থ্যকর্তা]

এদিন রেড রোডে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে ছিলেন বামফ্রন্ট সম্পাদক বিমান বসু, সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র, প্রাক্তন সাংসদ মহম্মদ সেলিম, বাম পরিষদীয় নেতা সূজন চক্রবর্তী-সহ একাধিক নেতা-কর্মী। স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী, দূরত্ব বজায় রেখে তাঁরা প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তাঁদের অভিযোগ, লকডাউনের জেরে গরিব-দুস্থ মানুষের ঠিকভাবে ত্রাণ পৌঁছচ্ছে না, রেশন নিয়ে দুর্নীতি হচ্ছে, এমনকী লকডাউন সঠিক ভাবে পালন হচ্ছে না সর্বত্র। কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার উভয়ের বিরুদ্ধেই অভিযোগে এই প্রতিবাদ কর্মসূচির আয়োজন করে বামফ্রন্ট। রাজ্যে করোনার টেস্ট ঠিকঠাকভাবে হচ্ছে না বলেও তাঁরা অভিযোগ করেছেন তাঁরা। এই প্রেক্ষিতে কলকাতা হাই কোর্টে দুটি মামলাও দায়ের করেছেন ফুয়াদ হালিম, বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যের মতো সিপিএম নেতারা। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দুবার বৈঠক করেছেন বাম নেতারা। তা সত্ত্বেও অভিযোগ, রাজ্য সরকার তাঁদের দাবি মতো পদক্ষেপ করছে না। তাই এদিন বিক্ষোভ দেখান তাঁরা।

[আরও পড়ুন: সংঘাত অব্যাহত, এবার রেশন দুর্নীতি নিয়ে রাজ্যকে বিঁধলেন রাজ্যপাল]

এদিন রেড রোডে ১৫ মিনিট অবস্থান বিক্ষোভে শামিল হন বাম নেতৃত্ব। পুলিশের পালটা অভিযোগ, বারবার সরে যেতে বলা সত্ত্বেও বিক্ষোভকারীরা লকডাউন ভাঙতে অনড় ছিল। তাই তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। যদিও বামেদের অভিযোগ, পুলিশই অতি সক্রিয় হয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নিয়ম ভেঙে তাঁদের গ্রেপ্তার করেছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement