১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৬ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নবান্ন অভিযানের পর লাগাতার বিজেপি কর্মীদের গ্রেপ্তারের অভিযোগ, হাই কোর্টে দায়ের মামলা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: September 15, 2022 9:33 pm|    Updated: September 15, 2022 10:00 pm

Litigation in Calcutta HC alleging harassment of BJP workers after Nabanna Rally | Sangbad Pratidin

রাহুল রায়: বিজেপির নবান্ন অভিযানের (BJP’s Nabanna Rally) পর থেকে বিজেপি কর্মীদের ধরপাকড়ের অভিযোগে ফের মামলা দায়ের হল কলকাতা হাই কোর্টে। শুক্রবার জরুরি ভিত্তিতে হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে শুনানির সম্ভাবনা রয়েছে। এর পাশাপাশি পুজোর মুখে বিজেপির নবান্ন অভিযানের জেরে ক্ষতির মুখে পড়েছেন মঙ্গলাহাটের ব্যবসায়ীরা। তা নিয়েও মামলা হয়েছে কলকাতা হাই কোর্টে।

মঙ্গলবার বিজেপির নবান্ন অভিযান সংক্রান্ত মামলায় প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশ ছিল অকারণে গ্রেপ্তার করা যাবে না। পাশাপাশি, দলীয় কার্যালয়ের নিরাপত্তা দিতে হবে। আদালতের নির্দেশে আগামী সোমবার মামলায় রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিবের রিপোর্ট পেশের কথা রয়েছে। তবে এরই মধ্যে নতুন করে অভিযোগ তুলে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে বিজেপি। অভিযোগ, গত দু’দিন ধরে পুলিশ দিনরাত ধরপাকড় শুরু করেছে। রাতের অন্ধকারে বাড়িতে ঢুকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। অথচ তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ কী, তা স্পষ্ট নয়। তাই আদালতের কাছে আবেদন, যাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে, তাঁদের বিরুদ্ধে কী কী অভিযোগ রয়েছে তা প্রকাশ করুক পুলিশ। তবে বিজেপির আবেদনের প্রেক্ষিতে নিয়ম মেনে মামলা দায়ের করতে বলেছে আদালত।

[আরও পড়ুন: এসএসসি দু্র্নীতি মামলায় গ্রেপ্তার মধ্যশিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়]

এদিকে পুজোর (Durga Puja 2022) মুখে বিজেপির নবান্ন অভিযানের জেরে ক্ষতির মুখে পড়েছেন মঙ্গলাহাটের ব্যবসায়ীরা। তাই ক্ষতিপূরণের আরজি নিয়ে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন জনৈক আইনজীবী। পাশাপাশি, কর্মসূচিকে ঘিরে সাধারণ মানুষ হয়রানির বিষয়টিও উল্লেখ করে শুভেন্দু অধিকারী, সুকান্ত মজুমদার, দিলীপ ঘোষকে মামলায় পক্ষভুক্ত করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহেই হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে শুনানির সম্ভাবনা রয়েছে।

আইনজীবীর দাবি, পুজোর আগে নবান্ন অভিযানের দিনই ছিল মঙ্গলাহাটের তৃতীয় মঙ্গলবার। এরপর আর মাত্র দুটো মঙ্গলবার পাওয়া যাবে। ফলে এদিন যে হাট চত্বরে ক্রেতাদের যথেষ্ট ভিড় হত। অন্যান্য মঙ্গলবার মঙ্গলাহাটের দিন একেবারে কাকভোর থেকেই পসার নিয়ে দোকান খুলে বসে পড়েন ব্যবসায়ীরা। তারপর যত বেলা বাড়ে, ততই ক্রেতাদের ভিড় উপচে পড়ে। পাশাপাশি, গোটা ময়দান চত্বর জুড়ে একাধিক অস্থায়ী দোকান লাগানো হয়। বিশেষত পুজোর মুখে মঙ্গলবার হাওড়া ময়দান দিয়ে পথ চলা দায় হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু গত মঙ্গলবার দেখা গেল সম্পূর্ণ উলটো ছবি। সকাল থেকেই কার্যত শুনসান মঙ্গলাহাট। তাই নবান্ন অভিযান নিয়ে কার্যত ক্ষুব্ধ হাওড়ার ব্যবসায়ী মহল। ফুঁসছেন পাইকারি ও ক্ষুদ্র বিক্রেতারা। কেন হাটবারেই হাওড়ায় রাজনৈতিক কর্মসূচি, সে নিয়ে আগেই প্রশ্ন তুলেছেন তাঁরা। তাই এবার মঙ্গলাহাটের ব্যবসায়ীদের কোটি কোটি টাকা ক্ষতির আশঙ্কায় মামলা হল হাই কোর্টে।

[আরও পড়ুন: চাকরিতে বঞ্চনার অভিযোগ, হাই কোর্টে শ্রেষ্ঠ ক্রীড়াবিদের পুরস্কার পাওয়া বিশেষভাবে সক্ষম সাঁতারু]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে