BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

৪ সপ্তাহে সাড়ে পাঁচ কোটি বাড়ি ভিজিট, করোনা যুদ্ধে অকুতোভয় আশাকর্মীরা

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: May 5, 2020 7:31 pm|    Updated: May 5, 2020 7:31 pm

An Images

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি ধীরে ধীরে উদ্বেগজনক জায়গায় যাচ্ছে। কিন্তু করোনা মোকাবিলায় কোনও খামতি নেই রাজ্যের স্বাস্থ্যদপ্তরের। রাজ্যের আশাকর্মী ও স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরলস প্রচেষ্টায় অনেকটাই আয়ত্তে রয়েছে পরিস্থিতি, এমনটাই উঠে আসছে পরিসংখ্যানের নিরিখে। করোনার প্রাথমিক ধাপ হিসাবে SARI (Severe Acute Respiratory Illness) এবং ILI (Influenza like illness) রোগীদের খুঁজে বের করতে রাজ্যের সর্বত্র খেটে চলেছেন আশা ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। সেকথাই নিজের ফেসবুকে মঙ্গলবার জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত চার সপ্তাহে রাজ্যের প্রত্যন্ত এলাকায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে ৮৭২ SARI রোগী এবং ৯১,৫১৫ ILI রোগীকে চিহ্নিত করা হয়েছে। আর এই বিরাট কর্মযজ্ঞের নেপথ্যে রয়েছেন রাজ্যের ৬০ হাজার প্রশিক্ষিত আশা ও স্বাস্থ্যকর্মী। তাঁদের এই প্রয়াসকে কুর্নিশ জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে মমতা জানিয়েছেন, গত ৭ এপ্রিল থেকে ৩ মে পর্যন্ত চার সপ্তাহে রাজ্যের সাড়ে পাঁচ কোটি বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছেন আশাকর্মী ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। রোগীদের পরীক্ষা করে তাঁদের চিহ্নিত করে চিকিৎসা সংক্রান্ত পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এঁদের মধ্যে ৩৭৫ জনকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ৬২ জন করোনা পজিটিভ বেরিয়েছেন। যাঁদের অধিকাংশই হাসপাতালে চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর মতে, আশাকর্মী এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে রোগী চিহ্নিতকরণ না করলে অনেক করোনা পজিটিভ রোগীরই সন্ধান মিলত না। সরকারের তরফে এই স্বাস্থ্য অভিযানে সাফল্য মিলেছে দাবি মুখ্যমন্ত্রীর।

[আরও পড়ুন: করোনার কামড় এবার পার্ক সার্কাসের শিশু হাসপাতালে, একসঙ্গে ১২ জন নার্স আক্রান্ত]

এদিকে, বাংলায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার বলি ৭ জন। মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৮। নতুন করে ৮৫ জনের শরীরে মিলেছে ভাইরাস। রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৩৪৪। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৬ জন। মোট ২৬৮ জন বর্তমানে করোনামুক্ত।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement