২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিধানসভায় নিজের দলকেই ছাগলের সন্তানের সঙ্গে তুলনা করে বসলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার বিধানসভায় ডেঙ্গু নিয়ে আলোচনা চলছিল। উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের সময় বিরোধীদের তথা সংবাদ মাধ্যমকে তোপ দাগতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূল কংগ্রেসকে ছাগলের প্রথম সন্তান বলে বসেন।

এদিন বিধানসভায় ডেঙ্গু ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীকে তীব্র কটাক্ষ শানান বিরোধীরা। তাঁরই জবাব দিতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এক জনের মৃত্যুও দুঃখজনক। কিন্তু কখনও কখনও দেশে রোগ এসে যায়। বাংলাদেশের বন্ধুত্ব নেবেন, রোগ নেবেন না? কোথা থেকে মশা আসছে আমরা জানি না, কোথা থেকে লার্ভা আসছে সেটাও জানি না। আমরা যদি মশা আমদানি করতাম তাহলে সবার আগে বলতাম আপনাদের কামড়াতে।” মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ ডেঙ্গু নিয়ে মিথ্যা তথ্য ছড়াচ্ছে বিরোধীরা। চালানো হচ্ছে অপপ্রচার।

[আরও পড়ুন: এটিএম জালিয়াতির জন্য দায়ী কেন্দ্রের আধার লিংক, বিধানসভায় তোপ ফিরহাদের]


এরপরই সংবাদ মাধ্যমের উপর ক্ষোভ উগরে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, সংবাদ মাধ্যমগুলি তৃণমূলের সঙ্গে ছাগলের তৃতীয় সন্তানের মতো আচরণ করে। সবসময় তাঁর সরকারের বিরুদ্ধে বিমাতৃসুলভ আচরণ করা হয়। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, তাঁর আমলে রাজ্যের এত উন্নয়ন হয়েছে, অথচ সংবাদমাধ্যম তা দেখতে পায় না। তিনি বলেন, ” কেন্দ্র এত জনবিরোধী কাজ করছে। অথচ, সর্বভারতীয় মিডিয়াগুলো সবসময় বিজেপির গুণগান করে। আর এখানের মিডিয়াগুলো যেন কোনও ভাল কাজ দেখতেই পায় না। এখানে যেন কোনও ভাল কাজই হয় না।” এরপরই মুখ্যমন্ত্রী ছাগলের সন্তানের সঙ্গে নিজের দলের তুলনা আনেন। তিনি বলেন, “মিডিয়া আমাদের সঙ্গে ছাগলের তৃতীয় সন্তানের মতো আচরণ করলেও, মানুষের কাছে তৃণমূল ছাগলের প্রথম সন্তান।”

উল্লেখ্য, এদিন বিধানসভায় ডেঙ্গু আক্রান্তদের পরিসংখ্যান দিয়েছেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, “একটা মৃত্যুও দুঃখজনক। কিন্তু, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া এবং হুগলির মতো জেলাগুলি ডেঙ্গুপ্রবণ। এই মুহূর্তে রাজ্যে ৪৪ হাজার ৮৫২ জন ডেঙ্গিতে আক্রান্ত।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং