১১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  সোমবার ২৫ মে ২০২০ 

Advertisement

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কৃতিত্ব দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর নামে পোস্টারে, শুরু রাজনৈতিক চাপানউতোর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 21, 2020 8:13 pm|    Updated: February 21, 2020 8:13 pm

An Images

কলহার মুখোপাধ্যায়, বিধাননগর: ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো তাঁর স্বপ্নের প্রকল্প। ভাবনা থেকে বাস্তবায়ন – সুদীর্ঘ পথের প্রতিটি পদক্ষেপে তিনি ছিলেন এক কাণ্ডারী। কিন্তু মেট্রো প্রকল্পের উদ্বোধনের সময় দেখা গেল, তিনিই ব্রাত্য। বিধাননগরবাসী এই ব্যাপারটি ভালভাবে গ্রহণ করতে পারেননি। তাই সল্টলেক স্টেডিয়াম থেকে সেক্টর ফাইভ পর্যন্ত মেট্রো চালু হওয়ার নেপথ্যে সাধারণ নাগরিকরা সর্বাধিক কৃতিত্ব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। বিধাননগরের বিভিন্ন রাস্তায়, মেট্রো স্টেশনগুলির বাইরে ছেয়ে গেল সেই পোস্টারে, যাতে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রীক ধন্যবাদ জানিয়েছে বিধাননগর নাগরিক বৃন্দ ও বিধাননগর ক্লাব সমন্বয় কমিটি। এই পোস্টারই বিজেপিকে উচিত জবাব দেওয়া হয়েছে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহলের একাংশ।

দীর্ঘ অপেক্ষা শেষে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি কলকাতায় সূচনা হয়েছে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের। সল্টলেক স্টেডিয়াম থেকে সেক্টর ফাইভ, এই যাত্রাপথে মেট্রো পরিষেবা চালু হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রেলমন্ত্রী থাকাকালীন এই প্রকল্পের ভাবনা, প্রস্তাব। এরপর ধাপে ধাপে কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। নানা ওঠাপড়ার মধ্যে কাজ হতে হতে অবশেষে তা শেষ হয়ে সল্টলেকবাসীর মুখে হাসি ফুটিয়েছে। অথচ প্রকল্পের উদ্বোধনের সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমন্ত্রিত ছিলেন না। যা নিয়ে বিস্তর রাজনৈতিক তরজা চলেছিল। কেন উদ্বোধনে রাজ্যকে ব্রাত্য করে রাখা হল, বিশেষত কেন ডাক পেলেন না রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, সেই প্রশ্ন তুলে সরব হন শাসকদলের নেতারা। উলটোদিকে কেন্দ্রের দাবি ছিল, মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ করা সত্ত্বেও তিনি তা গ্রহণ করার ক্ষেত্রে একেবারেই মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন। এই তরজার মাঝে মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যের মন্ত্রীদের অনুপস্থিতিতেই ১৩ তারিখ সূচনা হয় ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের।

[আরও পড়ুন: ভাষা দিবসকে সামনে রেখে অখণ্ডতার বার্তা, বিরোধী শক্তিকে ফের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক মমতার]

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি কেন্দ্রের সেই বঞ্চনা মেনে নিতে পারেননি বিধাননগরের জনসাধারণ। তাই বিধাননগর নাগরিক বৃন্দ ও বিধাননগর ক্লাব সমন্বয় কমিটির তরফে পরবর্তী সময়ে পোস্টার ছাপিয়ে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো যাত্রা শুরুর পুরোপুরি কৃতিত্ব দেওয়া হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীকে। যেখানে লেখা – ”মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ, রেলমন্ত্রী থাকাকালীন ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের পরিকল্পনা, অনুমোদন ও রাজ্য সরকার জমি দিয়ে সহায়তা করার জন্য।” বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, পোস্টার নিয়ে রাজনীতি হয়েছে। ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো সম্পূর্ণ কেন্দ্রের প্রকল্প। রাজ্য সরকার তা ‘হাইজ্যাক’ করতে চেয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন তিনি। বিধাননগরের তৃণমূল বিধায়ক তথা দমকল প্রতিমন্ত্রী সুজিত বসুর পালটা দাবি, ইচ্ছে করেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাশ কাটিয়ে মেট্রো প্রকল্পটির উদ্বোধন হয়েছে। তা সল্টলেকের সাধারণ জনগণ বুঝতে পেরেছেন। তাই তাঁদের এই উদ্যোগ।

[আরও পড়ুন: শুরুর পথে বউবাজারে মেট্রোর সুড়ঙ্গ খননকাজ, বিপর্যয় এড়াতে সতর্ক কর্তারা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement