BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

বেসরকারি হাতে প্যাসেঞ্জার ট্রেন, রেলের দপ্তর ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাবে কর্মী সংগঠন

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 2, 2020 5:35 pm|    Updated: July 2, 2020 5:38 pm

An Images

সুব্রত বিশ্বাস: ১০৯টি লাভজনক রুটে ১৫১টি ট্রেনকে বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সরব রেলের কর্মী সংগঠন। আগামীকাল, অর্থাৎ শুক্রবার কলকাতায় পূর্ব রেলের সদর দপ্তর-সহ চারটি ডিভিশনাল সদর কার্যালয় ও তিনটি ওয়ার্কশপের সামনে অবস্থান বিক্ষোভে বসবে পূর্ব রেলের মেনস ইউনিয়ন।

[আরও পড়ুন: এবার বেসরকারি হাতে প্যাসেঞ্জার ট্রেন! ১০৯ রুটে ট্রেন চালাতে টেন্ডার ডাকছে রেল]

প্যাসেঞ্জার ট্রেনের বেসরকারিকরণের পরিকল্পনা প্রত্যাহারের দাবি তুলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও রেলমন্ত্রীকে টুইট করে হুঁশিয়ারি দিয়েছে রেলের কর্মী সংগঠন। অতি লাভজনক রুটকে বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দিলে কোনও ইয়ার্ডে ট্রেন রক্ষণাবেক্ষণ করবেন না বলেও সাফ জানিয়ে দিয়েছেন কর্মীরা। পাশাপাশি ট্রেন চালক, গার্ড, ট্রাকম্যান কেউই কাজে যোগ দেবেন না। আন্দোলনকে বৃহত্তর রূপ দিতে সব প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবেন তাঁরা।

পূর্ব রেলের মেনস ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক অমিত ঘোষ অভিযোগ করে বলেন, “১০৯টি রুট অতি লাভজনক, পর্যটনস্থল কেন্দ্রিক। ট্রেনগুলিতে ২৪টি বগি থেকে কমিয়ে ১৬টি বগি করার জন্য ভাড়া দেড়গুণ হবে। ফলে সাধারণ যাত্রীরা আর সেসব ট্রেনে চড়বেন না। ফলে যাত্রী সংখ্যা কমে যাওয়ার কথা মাথায় রেখে ১৬ বগির চিন্তাভাবনা। এদিকে, ১৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা গতির ট্রেন দেশে চলতে পারবে না। রাজধানী এক্সপ্রেস ১৩০ কিলোমিটার গতির ট্রেন। দিল্লিতে পৌঁছতে যা সময় নেয় তার হিসাব করলে ট্রেনটি ৯৫ কিলোমিটার গতিতে চলে। মাটির পরিস্থিতিতে কখনই ওই গতি তোলা যাবে না। যার জন্য বুলেট ট্রেন চললো না। পাশাপাশি প্রস্তাব দিয়েছে ট্রেনের চলার সময় আগে ও পরে পনেরো মিনিট কোনও ট্রেন চলবে না। এই প্রেক্ষিতে রেলের আওতায় থাকা সবকটি ট্রেনের সময়ানুবর্তিতা ধাক্কা খাবে। জনপ্রিয়তা হারাবে ট্রেনগুলি। দেশের মানুষের স্বার্থে এই পরিকল্পনা কার্যকর করতে দেওয়া যাবে না। এজন্য সব ধরনের আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছে ইউনিয়ন।”

এদিকে, করোনা আবহে সামাজিক দূরত্ব মেনে আন্দোলন ও অনশনের পথে যাচ্ছে পূর্ব রেলের মেনস কংগ্রেস। সাধারণ সম্পাদক বিনোদ শর্মা অভিযোগ করেন, কোভিড পরিস্থিতিতে জীবন হাতে নিয়ে কাজ করে শ্রমিকরা সরকারের কাছ থেকে এ কেমন প্রতিদান পেলেন। সংগঠন এটা মেনে নেবে না। এখন আন্দোলন চলবে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আন্দোলন বড় আকার নেবে। সমাজবাদী দলের রেল মজদুর ইউনিয়নের পূর্বাঞ্চলের সভাপতি সুনীল শ্রীবাস্তব বলেন, এই পরিকল্পনা দেশের বিকাশের পরিপন্থী। আন্দোলন করতে যে কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হবে ইউনিয়নের পক্ষ থেকে।

[আরও পড়ুন: এবার আধাসেনায় যোগ দিতে পারবেন তৃতীয় লিঙ্গের মানুষও, যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement