৯ মাঘ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টানা পনেরো দিন পার। পিঁয়াজের দামের ঝাঁজে কার্যত চোখে জল আসছে আম আদমির। কিন্তু আজ থেকেই সেই ঝাঁজ নাকি কমতে পারে। সোমবার নাসিক থেকে প্রচুর পরিমাণ পিঁয়াজ ঢুকেছে শহরে। আর সেই পিঁয়াজই পাইকারি বাজারে বিক্রি হয়েছে ৮৫-৯০ টাকা কেজিতে। ছোট পিঁয়াজের দাম আরও কম। তবু এতদিনের বেড়ে যাওয়া দাম পুরোপুরি কমতে আরও দু’-এক দিন সময় লাগবে বলেই জানা গিয়েছে। কারণ ফড়েদের দাপট।

যদিও টাস্ক ফোর্সের নজরদারিতে এবার আর দাম ঊর্ধ্বমুখী রাখতে পারবে না বলেই জানাচ্ছেন আধিকারিকরা। কিন্তু রাতারাতি এত পিঁয়াজ এল কোথা থেকে? জানা গিয়েছে, নাসিকের আপার ল্যান্ড থেকে এই নতুন পিঁয়াজ ঢুকেছে। রবিবার যত না ঢুকেছে সোমবার তার চারগুণ পিঁয়াজ ঢুকেছে কোলে মার্কেটে। দিনদিন তা আরও বাড়বে। কোলে মার্কেটে সোমবার দিনই পাইকারি বাজারে ৮৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে সুফল বাংলার জন্য।  ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহের আগে নাসিকের পিঁয়াজ ঢোকার কথা ছিল না। কারণ সেখানে অতিবৃষ্টি। তবে নিয়মের ব্যতিক্রম হওয়ায় স্বস্তির আশ্বাস বাজারগুলিতে।

[ আরও পড়ুন: পিঁয়াজ ছাড়াই রান্নায় মিলবে পিঁয়াজের স্বাদ, বাজারে এল নয়া ফর্মুলা ]

কৃষি দপ্তরের কর্তারা জানাচ্ছেন, অতিবৃষ্টি হলেও লো ল্যান্ডের পিঁয়াজ জল জমে নষ্ট হয়েছে। আপার ল্যান্ডের পিঁয়াজে কোনও সমস্যা হয়নি। তাই এখানে ঢুকেছে। শুক্রবার রাত থেকে সেই পিঁয়াজ লোড হয়েছে গাড়িতে। আর রবিবার রাত থেকে তা ঢোকা শুরু করেছে। পিঁয়াজ ঢুকেছে পোস্তাতেও। আজ মঙ্গলবার থেকে পরিমাণ আরও বাড়বে। যাবে জেলাতেও। 

সোমবার থেকে কলকাতার রেশন দোকানে পিঁয়াজ দেওয়া শুরু হয়েছে। তাই সেখানে ছিল মানুষের লম্বা লাইন। রাজস্থানের আলওয়ার থেকে রাজ্যে এসেছে পিঁয়াজ। এতদিন সস্তায় পিঁয়াজ পাওয়া যেত সুফল বাংলার স্টলে। কিন্তু কলকাতা শহরে সুফল বাংলার স্টলের সংখ্যা হাতে গোনা। তাই শহরবাসীর সিংহভাগ এই সুবিধা পাচ্ছিলেন না। সেই সমস্যা সমাধানের জন্য রেশনে পিঁয়াজ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। 

[ আরও পড়ুন: বিদেশি ভাড়াটে নিয়ে কড়া পুলিশ, ‘C’ ফর্ম না ভরলে গ্রেপ্তার হবেন বাড়িওয়ালা ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং