BREAKING NEWS

১৫ মাঘ  ১৪২৯  সোমবার ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

৪২টি কেন্দ্রে ৩৫০ জনের নামের তালিকা নিয়ে দিল্লির পথে বঙ্গ বিজেপি

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: March 7, 2019 11:14 am|    Updated: March 7, 2019 2:29 pm

Over 300 BJP candidates for 42 Bengal LS seats

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের ৪২টি আসনের জন্য মোট ৩৫০ জনের নামের তালিকা নিয়ে সোমবার দিল্লি যাচ্ছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। এমনটাই খবর দলীয় সূত্রে। ওই ৩৫০ জনের মধ্যে থেকে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব ৪২ জন প্রার্থীর নাম চূড়ান্ত করবে। তবে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব চাইলে ওই ৩৫০ জনের বাইরে অন্য নামও প্রার্থী তালিকায় স্থান পেতে পারে। ওই তালিকা দিল্লিতে জমা পড়ার পর পরবর্তীক্ষেত্রে সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহর উপস্থিতিতে বৈঠকেই ৪২টি লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা তৈরি হবে।

এদিকে, লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুতিতে সংগঠনের হালহকিকৎ নিয়ে বিভিন্ন বিধানসভা এলাকার মণ্ডলের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক শুরু করে দিলেন রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। এলাকায় গিয়ে দলের কার্যকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকের পাশাপাশি স্থানীয় বাসিন্দাদের সমস্যার কথাও শুনলেন বিজেপির এই কেন্দ্রীয় নেতা। বুধবার সকালে উত্তর কলকাতা লোকসভা কেন্দ্রের এন্টালি বিধানসভা এলাকায় দলের এন্টালি পশ্চিম মণ্ডলের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে সংগঠন নিয়ে আলোচনা করেন কৈলাস। উপস্থিত ছিলেন দলের উত্তর কলকাতা জেলার সভাপতি দীনেশ পাণ্ডে, বিজেপি নেত্রী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল প্রমুখ। এরপর বেলেঘাটা বিধানসভা এলাকায় দলের উত্তর ও পশ্চিম মণ্ডলের কর্মীদের সঙ্গে লোকসভা ভোটের প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করেন। সংগঠনের অবস্থার হালহকিকৎ জানেন। কীভাবে কাজ করতে হবে তা নিয়ে পরামর্শও দেন।

[সুবক্তার খোঁজে তৃণমূল, লোকসভার আগে প্রতিযোগিতার আয়োজন শাসকদলের]

এদিকে, সেনাদের রক্ত নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে বলে মুখ্যমন্ত্রী যে অভিযোগ তুলেছেন তার পালটা জবাব দিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বুধবার চুঁচুড়ায় দলের শক্তিকেন্দ্রের সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন দিলীপবাবু। সেখানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “সেনাদের রক্ত নিয়ে কোনও রাজনীতি হয়নি। সেনাদের রক্তে আমরা গর্বিত। প্রশ্ন মুখ্যমন্ত্রীই তুলেছেন। সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর দায়সারাভাবে উনি সম্মান জানিয়ে ছিলেন সেনাকে। উনি সেনাদের সঙ্গে কোনওদিনই ছিলেন না।” এদিন কংগ্রেসকে আক্রমণ করে দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, দেশ শক্তিশালী হোক কংগ্রেস চায় না। কংগ্রেস সেনাবাহিনীকে দুর্বল করে রেখেছিল। এদিন চুঁচুড়ায় দলীয় সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য নেতা প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়, সায়ন্তন বসু প্রমুখ।

[সরকারি বৈঠকের মধ্যেই দলীয় বিধায়ককে জুতোপেটা বিজেপি সাংসদের, দেখুন ভিডিও]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে