BREAKING NEWS

১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বেলাগাম ফি বৃদ্ধির অভিযোগে ধুন্ধুমার গড়িয়ার স্কুলে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 30, 2017 9:22 am|    Updated: October 2, 2019 12:30 pm

Parents protest outside school over fee hike in Kolkata

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অস্বাভাবিক ফি বাড়ানোর অভিযোগ। গড়িয়ার বিডি মেমোরিয়াল স্কুলে সকাল থেকে বিক্ষোভ অভিভাবকদের। স্কুলের কর্মীদের সঙ্গে তাদের হাতাহাতি হয়। কামলগাজি মোড়ে চলে অবরোধ। বর্ধিত ফি প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত রাস্তা ছাড়তে নারাজ বিক্ষুব্ধ অভিভাবকরা। তবে স্কুল কর্তৃপক্ষর দাবি ফি বাড়ানোর বিষয়টি অভিভাবকদের জানানো হয়েছিল।

[নারদ নিউজের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন ম্যাথু স্যামুয়েলের]

এই ইস্যুতে মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে স্কুল চত্বরে ভিড় জমাতে থাকেন অভিভাবকরা। তাঁদের অভিযোগ, কাউকে কার্যত না জানিয়ে ১৮-১৯ হাজার টাকা পর্যন্ত ফি বাড়ানো হয়েছে। এমনকী দুর্গাপুজোর জন্য স্কুল থেকে টাকা নেওয়া হচ্ছে। ফি প্রত্যাহারের দাবিতে প্রায় দেড় থেকে দু’হাজার অভিভাবকের বিক্ষোভে স্কুল চত্বরে উত্তেজনা ছড়ায়। অভিযোগ বিক্ষোভ ভণ্ডুল করতে বহিরাগতরা পাথর ছোড়ে বলে অভিযোগ। তাড়া করে এক যুবককে ধরে ফেলে অভিভাবকরা। তাকে পালটা মারধর করা হয়।

এই নিয়ে কর্মীদের সঙ্গে একপ্রস্থ বচসা হয় অভিভাবকদরে। কয়েক ঘণ্টা ধরে এমন অচলাবস্থা চলার পর স্কুল কর্তৃপক্ষ মুখ খোলে। তবে তাতে পরিস্থিতি আরও ঘোরাল হয়ে ওঠে। বি ডি মেমোরিয়ালের প্রিন্সিপাল দাবি করেন অভিভাবকদরে সঙ্গে কথা বলেই ফি বৃদ্ধি হয়। এখন তাঁরা কেন অস্বীকার করছেন তা নাকি তিনি বুঝতে পারছেন না। ফি বাড়ানোর ক্ষেত্রে বেশ কিছু সাফাই দিয়েছে স্কুলের প্রিন্সিপাল। তাঁর বক্তব্য গত কয়েক মাসে স্কুলের পরিকাঠামো অনেকটা উন্নত করা হয়েছে। তার জন্য কিছুটা অর্থ বাড়ানো হয়।

[বিতর্কের জেরেই কি ‘ককপিট’-এর টিজার থেকে সরানো হল প্রসেনজিৎকে?]

অভিভাবকদের বিক্ষোভ রাস্তায় চলে আসে। ফি প্রত্যাহারের দাবিতে স্কুল লাগোয়া কামালগাজি মোড় অবরোধ হয়। অভিভাবকদের বিক্ষোভে অবরুদ্ধে হয়ে পড়ে নেতাজি সুভাষ রোড। সোনারপুর থানা পুলিশ গিয়ে অবরোধ তুলতে ব্যর্থ হয়। তারা স্কুল কর্তৃপক্ষর সঙ্গে কথা বলে। অভিভাবকদের অভিযোগ কয়েক মাস আগে এসি বসানোর জন্য টাকা নেওয়া হলেও অধিকাংশ ক্লাসরুমে তা বসানো হয়নি। এমনকী নিয়মকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ওই স্কুলে বছরভর ভর্তি নেওয়া হয়। এই ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রী এবং শিক্ষামন্ত্রীর হস্তক্ষেপের আবেদন জানিয়েছেন ক্ষুব্ধ অভিভাবকরা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে