BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে অসুস্থ শিশুকে হাসপাতাল নিয়ে যেতে নাজেহাল বাবা-মা, পাশে দাঁড়াল কলকাতা পুলিশ

Published by: Sulaya Singha |    Posted: April 10, 2020 9:32 pm|    Updated: April 10, 2020 9:32 pm

An Images

অর্ণব আইচ: রাস্তার উপর ৯ মাসের শিশুকে নিয়ে দাঁড়িয়ে মা ও বাবা। অসুস্থ শিশুটিকে নিয়ে যেতে হবে হাসপাতালে। কিন্তু লকডাউনের জেরে গাড়ি অমিল। যাও বা দু-একটা আসছে, দাঁড়াচ্ছে না কোনও গাড়িই। গভীর রাতে এই অবস্থাই হয়েছিল শহরের এক দম্পতির। শেষপর্যন্ত এগিয়ে এল উত্তর কলকাতার সিঁথি থানার পুলিশ।

নিজেদের গাড়ি করে আর জি কর হাসপাতালে দম্পতি ও তাঁদের শিশুটিকে পৌঁছে দিল পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ এই ঘটনাটি ঘটে। উত্তর কলকাতার বাসিন্দা ওই দম্পতির নয় মাসের শিশুপুত্র হঠাৎই ডায়রিয়ায় অসুস্থ হয়ে পড়ে। ক্রমে নিস্তেজ হয়ে যাচ্ছিল শিশুটি। পাড়ার চিকিৎসক জানিয়ে দেন, যে করেই হোক হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে তাকে। দিতে হবে স্যালাইন। তাই মা ও বাবা সন্তানকে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে বি টি রোডে আসেন। বি টি রোডের উপর অনেকক্ষণ দাঁড়িয়ে ছিলেন দম্পতি। লকডাউনে (Lockdown) এমনিতেই গাড়ি খুবই কম চলছে রাস্তাঘাটে। তার উপর যে ক’টি গাড়ি প্রচন্ড গতিতে যাচ্ছিল, প্রত্যেকটিকেই হাত দেখিয়ে দাঁড় করানোর চেষ্টা করেন অসহায় অভিভাবকরা। কিন্তু থামেনি কোনও গাড়ি।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে করোনায় মৃত ৫ না আরও বেশি? ‘বিভ্রান্তি’ কাটালেন মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা]

টহলরত সিঁথি থানার পুলিশ আধিকারিকদের চোখে পড়ে সেই দৃশ্য। দম্পতি জানান, তাঁরা এক ঘণ্টা ধরে চেষ্টা করে যাচ্ছেন গাড়ি পাওয়ার। যে কোনও গাড়িতে শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে যেতেই হবে। অসহায় দম্পতি ও কোলের শিশুকে সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশ আধিকারিকরা নিজেদের গাড়িতে তুলে নেন। হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে শিশুটির ভরতির ব্যবস্থাও করে দেওয়া হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

করোনা মোকাবিলায় লকডাউনে বাড়িতে থাকা কতটা জরুরি, তা নানাভাবে বোঝানোর চেষ্টা করছে পুলিশ। কোথাও গান গেয়ে তো কোথাও শক্ত হাতে সাধারণকে ঘরে থাকতে বলা হচ্ছে। জরুরি কাজে বাইরে বেরলে অবশ্য মিলছে পুলিশের সাহায্য। বৃদ্ধের বাড়ি সবজি পৌঁছে দেওয়া হোক কিংবা রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া, সবই করছে তৎপরতার সঙ্গে। এবার পুলিশের মানবিক রূপের সাক্ষী রইলেন উত্তর কলকাতার ওই দম্পতি।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে অনন্য নজির, শিক্ষক-শিক্ষিকাদের পাশে সাউথ পয়েন্টের প্রাক্তনীরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement