০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

CAA বিরোধী উত্তাপের মাঝে কলকাতা সফরে মোদি, পোর্ট ট্রাস্টের অনুষ্ঠানে যোগদান

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 2, 2020 1:59 pm|    Updated: January 2, 2020 1:59 pm

Prime Minister Narendra Modi to visit Kolkata, probable date is January 10

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: বছরের শুরুতেই কলকাতায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পোর্ট ট্রাস্টের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আগামী ১০ কিংবা ১১ তারিখ শহরে আসবেন তিনি। যদিও এ বিষয়ে এখনও রাজ্য বিজেপির তরফে নিশ্চিত করে কিছু ঘোষণা করা হয়নি। তবে সূত্রের খবর, ওই সময়ে মোদি কলকাতায় এসে একদিন থাকবেন। সেসময় তাঁকে নিয়ে রাজনৈতিক সভার পরিকল্পনা করছেন রাজ্যস্তরের নেতারা। আর পোর্ট ট্রাস্টের কর্তারা অপেক্ষা করছেন প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে তাঁর আগমন সম্পর্কে নিশ্চিত তথ্য পেতে।

বছরের শেষদিকেই সংসদে পাশ হয়ে রাষ্ট্রপতির সই নিয়ে আইনে পরিণত হয়েছে সংশোধিত নাগরিকত্ব বিল। আর সঙ্গে সঙ্গে বাংলা থেকেই সবচেয়ে বেশি প্রতিবাদ শুরু হয়েছে। পরবর্তী সময়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে তা ছড়িয়ে পড়লেও, পথ দেখিয়েছে বাংলাই। এবং এই মুহূর্তে CAA বিরোধী আন্দোলনের সুর সবচেয়ে চড়া এ রাজ্যেই। এই পরিস্থিতিতে মোদির কলকাতা সফর অন্য মাত্রা নিতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। ১০ কিংবা ১১ তারিখ প্রধানমন্ত্রী এলে তাঁকে দিয়ে জনসভা করাতে চায় রাজ্য বিজেপি। অন্যদিকে, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাশের পর এ রাজ্যের উদ্বাস্তু মানুষজন তাঁকে সংবর্ধনা জানাবেন বলে ঠিক করে রেখেছেন। ফলে যে কোনও একটি অনুষ্ঠানই মোদিকে নিয়ে হবে বলে সূত্রের খবর।

[আরও পড়ুন: নতুন বছরের শুরুতেই বেঁধে দেওয়া হল কাজ, ১৫দিন ভোটার তালিকা মেলাবে তৃণমূল]

লোকসভা ভোটে ১৮টি আসনে জয়ের পর এ রাজ্যে বিজেপি কিছুটা দাপট দেখালেও, এখনও অনেক জায়গায় সাংগঠনিক স্তরে দুর্বলতা রয়েছে। সম্প্রতি ৩ বিধানসভার উপনির্বাচনে একটিও আসন দখল করতে না পারার নেপথ্যে সেই দুর্বলতার কথা প্রকাশ্যে এসেছে। সামনে আবার পুরভোট এবং বছর কাটলেই একুশের বিধানসভা নির্বাচন। কাজেই এই পরিস্থিতিতে নরেন্দ্র মোদি জনসভা করলে দলের তৃণমূল স্তর পর্যন্ত কর্মীরা উজ্জীবিত হবেন বলে আশা রাজ্য নেতৃত্বের। নতুন উদ্যমে সকলে কাজে নেমে পড়বেন। পাশাপাশি, যেখানে যা অন্তর্দ্বন্দ্ব আছে, মোদির ভোকাল টনিক তাও দূর করতে পারবে বলে আশা তাঁদের। তাছাড়া CAA’র সমর্থনে দেশের প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য ভিন্ন গুরুত্ব পাবে।

[আরও পড়ুন: কেন্দ্রের স্বচ্ছতা সমীক্ষায় অপরিষ্কার শহরের তকমা পেল কলকাতা ও হাওড়া]

তবে সবটাই নির্ভর করতে প্রধানমন্ত্রী নিজে কতটা সময় দিতে পারেন, তার উপর। সূ্ত্রের খবর, তিনি কলকাতায় আসছেন এক দিনের জন্য। রাজভবনে রাত কাটাবেন। পোর্ট ট্রাস্টের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার পর যদি এখানে কিছু কর্মসূচি থাকে, তা সম্পূর্ণ করে দিল্লি ফিরবেন। তবে শেষপর্যন্ত তাঁর সফরসূচি নিশ্চিত করবে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে