৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ঊর্ধ্বমুখী ডিজেলের দাম, ভাড়া বাড়ানোর জন্য সরকারকে চাপ বেসরকারি বাস মালিকদের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 15, 2020 9:02 pm|    Updated: June 15, 2020 9:51 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

নব্যেন্দু হাজরা: ন’দিনে ডিজেলের দাম বেড়েছে ৪ টাকা ৭২ পয়সা, এই যুক্তি দেখিয়েই ভাড়া বৃদ্ধির জন্য সরকারের উপর চাপ দিতে শুরু করল বেসরকারি বাস মালিকরা। দু-তিন দিনের মধ্যে ভাড়া বাড়ানো নিয়ে সিদ্ধান্ত না হলে বাস বন্ধের হুঁশিয়ারি দিয়েছে তাঁরা। তবে এটি একটি সংগঠনের কথা। অন্যান্য সংগঠনের নেতারা জানিয়েছেন, এখন যে পরিমাণ বাস চলছে আগামী দিনেও তেমনি চলবে। অন্যদিকে, করোনা আবহে ঝুঁকি নিয়ে কাজ করতে হচ্ছে বলে ট্যাক্সি চালকদেরও সরকারি স্বাস্থ্যবিমার আওতায় আনার দাবি তুলেছে এআইটিইউসি (AITUC) অনুমোদিত ট্যাক্সি সংগঠন।

আনলক ওয়ানের শুরুতেই ধীরে ধীরে রাস্তায় নামতে শুরু করেছিল সরকারি বাস। কিন্তু ভাড়া বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে তখনই রাস্তায় নামতে রাজি হয়নি বেসরকারি বাসমালিকরা। পরে একাধিক বৈঠকের পর স্থির হয়েছিল যে আপাতত পুরনো ভাড়াতেই চালানো হবে বেসরকারি ও মিনিবাস। নির্দেশ মেনে বাস রাস্তায় নামলেও কয়েকদিনের মধ্যেই ফের বেঁকে বসলেন বাসমালিকরা। কারণ, উর্দ্ধমুখী ডিজেলের দাম। ফলে চড়া দামে ডিজেল কিনে সামাজিক দূরত্ব মেনে বাস চালিয়ে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে মালিকদের। সেই কারণেই বাসমালিকদের হুঁশিয়ারি ২ দিনের মধ্যে ভাড়া না বাড়ালে তুলে নেওয়া হবে বাস। পাশাপাশি, করোনা আবহে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পরিষেবা দিচ্ছেন ট্যাক্সিচালকরা। সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে তাঁদেরও। সেই কারণেই চালকদের সরকারি স্বাস্থ্য বীমার আওতায় আনার দাবি জানাল এ আই টি ইউ সি অনুমোদিত ট্যাক্সি সংগঠন।

[আরও পড়ুন: এই মুহূর্তে হাওড়ায় চলবে না লোকাল ট্রেন, গুজব উড়িয়ে জানাল রেল]

এ বিষয়ে রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে (Suvendu Adhikari) সোমবার একটি চিঠি দেওয়া হয়েছে। সেখানে আরও বেশ কিছু দাবির কথা উল্লেখ করা হয়েছে। তার মধ্যে ট্যাক্সি চালকদের মাস্ক, স্যানিটাইজার, গ্লাভস দেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছে। পাশাপাশি, লকডাউন চলাকালীন সমস্ত রকম গাড়ির ট্যাক্স মুকুবেরও আবেদন জানানো হয়েছে সংগঠনের তরফে। ওয়েস্টবেঙ্গল ট্যাক্সি অপারেটর্স কোর্ডিনেশন কমিটির আহ্বায়ক নওয়াল কিশোর শ্রীবাস্তব বলেন, “ট্যাক্সিচালকরা যেভাবে পরিষেবা দিচ্ছে তাতে তাঁদের জীবনের নিরাপত্তার কথাটাও ভাবা দরকার সরকারের।”

[আরও পড়ুন: শিশু খুনের কয়েক বছর আগে স্ত্রীকে হত্যা? বড়বাজার কাণ্ডে ধৃতের প্রতিবেশীদের বয়ানে রহস্য]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement