BREAKING NEWS

১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বড় উপহার মুখ্যমন্ত্রীর, বাংলার সব পুজো কমিটিকে অনুদান রাজ্যের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: September 10, 2018 6:42 pm|    Updated: September 10, 2018 10:05 pm

Puja organizers to get Rs 10000, announces Mamata Banerjee

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘দিদি আপনাদের সকলের সঙ্গে আছে, সব পুজোর সঙ্গে যুক্ত আছে’, বক্তব্য রাখার ফাঁকে এই কথাটি বললেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু মুখে বললেন না, মুখ্যমন্ত্রী এদিন নিজের কথা প্রমাণ করার মতো অনেকগুলি কাজও করলেন। বাংলায় মোট ২৮ হাজার ছোট বড় দুর্গাপুজো হয়। বৈঠক থেকে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করলেন বাংলার প্রতিটা প্রতিটি পুজো কমিটিকে অনুদান হিসেবে দেওয়া হয়েছে ১০ হাজার টাকা।

[‘জ্বালানির দাম বাড়লে ক্ষতি নেই, রাস্তাঘাট তো ভাল’, আজব সাফাই দিলীপ ঘোষের]

মুখ্যমন্ত্রীর ভাষায়, “কলকাতা শহরে ছোটবড় ৩ হাজার পুজো হয়, জেলাগুলি মিলিয়ে পুজো হয় মোট ২৫ হাজার মতো। কলকাতা পুলিশ, এবং পুরসভার তরফে শহরের সব ছোট বড় পুজোকে ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে। অনুদান তুলে দেওয়া হবে পুলিশের তরফে। জেলার পুজোগুলিকেও ১০ হাজার টাকা করেই অনুদান দেওয়া হবে। অনুদান দেওয়া হবে ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তর, পর্যটন দপ্তর এবং রাজ্য পুলিশের মিলিত উদ্যোগে। “এছাড়াও এদিন কলকাতার পুজো কমিটি গুলির জন্য আরও একাধিক সুবিধার কথা ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানিয়েছেন, এবার আর পুজো কমিটির বিদ্যুতের ব্যবহারের জন্য কোনও লাইসেন্সিং ফি লাগবে না। মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, এবার পুজো কমিটিগুলিকে বিদ্যুতের খরচের পিছনেও অতিরিক্ত ছাড় দেওয়া হবে। আগে যে ছাড় ছিল ১৮-২০ শতাংশ, এবার তা বেড়ে হচ্ছে ২০ থেকে ২৩ শতাংশ।

[বনধে অশান্তির হুমকি, রাজ্যের ঘাড়ে দায় চাপাতে মরিয়া সূর্য]

এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ডাকা হাজির ছিলেন শহরের ছোট বড় বহু পুজো কমিটির সদস্য। হাজির ছিলেন পুলিশ কর্তা থেকে শুরু করে দমকল দপ্তরের কর্তারা। বৈঠকের মঞ্চ থেকেই মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন এবছর কলকাতায় বিসর্জন হবে তিন দিন ১৯ থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত। পুজো কার্নিভ্যাল আয়োজিত হবে ২৩ অক্টোবর। এবারর কার্নিভ্যালে অংশ নেবে ৫৫ থেকে ৭৫ টি পুজো। পুজোয় শান্তি এবং সম্প্রীতি বজায় রাখার প্রতি বিশেষ নজর রাখার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী । তিনি বলেন, “একটা উদ্ভট দল অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করছে, আপনারা কারও কথায় কান দেবেন না। ওরা দাঙ্গা বাধিয়ে মার্কেটিং করে খায়।” পুজোর আগে প্রতিটি জেলায় এসপি এবং জেলাশাসকদের পুজো কমিটিগুলিকে নিয়ে কো-অর্ডিনেশন বৈঠক করারও নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে