Advertisement
Advertisement
বেলেঘাটা

বেলেঘাটা কাণ্ডে নয়া মোড়, মৃত শিশুর বাবা-মায়ের DNA পরীক্ষার আবেদন মঞ্জুর শিয়ালদহ আদালতের

চলতি জানুযারিতেই ২ মাসের সন্তানকে খুন করে বেলেঘাটার বাসিন্দা সন্ধ্যা মালো জৈন।

Sealdah court allows DNA test in beleghata child murder case
Published by: Tiyasha Sarkar
  • Posted:February 17, 2020 7:02 pm
  • Updated:February 18, 2020 12:11 am

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেলেঘাটা কাণ্ডে ডিএনএ পরীক্ষার আবেদন মঞ্জুর করল শিয়ালদহ আদালত। বেলেঘাটা কাণ্ডে মৃত খুদের পরিচয় নিশ্চিত করতেই যত দ্রুত সম্ভব অভিযুক্ত সন্ধ্যা মালো জৈন ও তার স্বামীর ডিএনএ পরীক্ষা করতে চাইছেন তদন্তকারী আধিকারিকারিকরা। সূত্রের খবর, শীঘ্রই এ বিষয়ে হাসপাতালের সঙ্গে কথা বলবেন কলকাতা পুলিশের আধিকারিকরা।

চলতি বছরের শুরুতেই বেলেঘাটার সন্ধ্যা মালোর কীর্তিতে শিউড়ে উঠেছিল গোটা রাজ্য। ২ মাসের শিশু কন্যাকে খুনের পিছনে মায়ের কী অভিসন্ধি থাকতে পারে তা ভাবিয়ে তুলেছিল তদন্তকারীদের। বারবার জেরায় খুনের পিছনে মানসিক চাপ, বিরক্তিকেই কারণ হিসেবে দাবি করলেও তা মানতে নারাজ ছিল পুলিশ। এরপর প্রকাশ্যে এসেছিল সন্ধ্যা মালোর এক পুরুষ বন্ধুর কথা। জানা গিয়েছিল তাঁদের দীর্ঘদিনের সম্পর্কের বিষয়। যদিও ওই যুবককে প্রেমিক বলে স্বীকার করেনি সন্ধ্যা। তা সত্ত্বেও এই ঘটনার পিছনে তাঁর যোগ থাকা অসম্ভব নয় বলেই মনে করেছিলেন তদন্তকারীরা।

Advertisement

[আরও পড়ুন: কোমার প্রথম ধাপে পুলকার দুর্ঘনায় জখম ঋষভ-দিব্যাংশু, আশা জিইয়ে চিকিৎসায় সামান্য সাড়া]

তবে তদন্তকারীদের সব থেকে বেশি ভাবিয়েছিল নৃশংসতা। পরিস্থিতি যাই হোক মা কি কখন পারে সন্তানকে এভাবে হত্যা করতে? ঘুরে ফিরে বারবার উঠে আসছিল এই প্রশ্নই। এতেই তদন্তকারীদের মনে সন্দেহ দানা বাঁধে যে এই সন্তান আদৌ ওই দম্পতিরই কি না। এরপরই ডিএনএ পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশ। এরপরই বেলেঘাটার থানার তরফে শিয়ালদহ আদালতে ডিএনএ পরীক্ষার আবেদন জানানো হয়। সেই আবেদনই মঞ্জুর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনজীবী। প্রসঙ্গত, চলতি বছরের জানুয়ারিতে ২ মাসের শিশুকন্যাকে খুন করে অপহরণের নাটক করে বেলেঘাটার সিআইটি রোডের অভিজাত আবাসনের বাসিন্দা সন্ধ্যা মালো জৈন। দিনভর নাটকের পর অবশেষে চাপে পড়ে সন্তানকে খুনের কথা স্বীকার করে অভিযুক্ত। বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে তাকে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: শিবরাত্রির আগে ধর্মবিশ্বাসকে কাজে লাগিয়ে সাপ বিক্রির চেষ্টা, পাকড়াও ভিনরাজ্যের বাসিন্দা]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ