২৮ কার্তিক  ১৪২৬  শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

কৃষ্ণকুমার দাস ও সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়: স্বাধীনতা দিবসের সন্ধ্যা থেকে ৭২ ঘণ্টার জন্য বন্ধ থাকছে শহরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শিয়ালদহ উড়ালপুল। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য এই উড়ালপুল বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে কেএমডিএ এবং কলকাতা ট্রাফিক পুলিশ। শুধু শিয়ালদহ উড়ালপুলই নয়, প্রায় একইসঙ্গে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য আরও দু’টি সেতু বেশ কয়েকদিন বন্ধ রাখা হবে। সেগুলি হল–অরবিন্দ সেতু এবং জীবনানন্দ সেতু। দু’টি সেতুই যান চলাচলের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এরই মাঝে সোমবার সন্ধ্যা থেকে তিনদিনের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বাঘাযতীন সেতুর একাংশও। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পরপর চারটি সেতু বন্ধ থাকার ফলে স্বাধীনতা দিবসের সন্ধ্যার পর থেকেই শহরজুড়ে তীব্র যানজটের আশঙ্কা করছেন অনেকেই। যানজটের এই সমস্যা থাকবে এ মাসের শেষের দিনগুলি পর্যন্ত।

[আরও পড়ুন:  টালিগঞ্জ থানায় ঢুকে পুলিশকে মার মদ্যপদের, গ্রেপ্তার ২ অভিযুক্ত]

শহরের যানজটের কমাতে শিয়ালদহ ফ্লাইওভারের বিকল্প রুট দিয়ে যানবাহন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন লালবাজারের কর্তারা। তবে  অরবিন্দ সেতু এবং জীবনানন্দ সেতুর বিকল্প রুট এখনও পর্যন্ত চূ়ড়ান্ত করা যায়নি। কয়েকদিনের মধ্যেই সেই রুটগুলিও চূড়ান্ত হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন কলকাতা পুলিশের ডিসি (ট্রাফিক) সন্তোষ পাণ্ডে। অরবিন্দ সেতু বন্ধ থাকছে ২২ আগস্ট থেকে  ২৪ আগস্ট পর্যন্ত।

ফ্লাইওভার বন্ধে বেলেঘাটা রোড, এম জি রোডের দিকে যাওয়ার রাস্তা খোলা। দক্ষিণ দিক দিয়ে এনআরএস হাসপাতাল আসা যাবে।

দক্ষিণ থেকে রাজাবাজারগামী বাসগুলির অস্থায়ী স্ট্যান্ড হবে এনআরএস হাসপাতালের কাছে।

এম জি রোড থেকে বেলেঘাটা হয়ে পূর্বদিকে যাওয়ার বাসগুলি এপিসি রোড, নারকেলডাঙা মেন রোড হয়ে যাতায়াত করবে।

এপিসি রোড ধরে দক্ষিণে যাওয়ার বাসগুলি মানিকতলা ক্রসিং থেকে বিবেকানন্দ রোড, আমহার্স্ট স্ট্রিট, বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিট, নির্মলচন্দ্র স্ট্রিট, লেনিন সরণি অথবা এম জি রোড ধরে আমহার্স্ট স্ট্রিট হয়ে একই রাস্তা ধরবে।

লেনিন সরণি হয়ে মানিকতলা যাওয়ার বাসগুলি এসপ্ল্যানেড থেকে সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, কলুটোলা বা বিবেকানন্দ রোড হয়ে যাবে।

বেলেঘাটা রোড ধরে রাজাবাজার ক্রসিংয়ের দিকে যাওয়া বাসগুলি ফুলবাগান, কাঁকুড়গাছি, মানিকতলা মেন রোড, মানিকতলা ক্রসিং হয়ে এপিসি রোড অথবা ফুলবাগান ক্রসিং, নারকেলডাঙা মেন রোড, রাজাবাজার ক্রসিং হয়ে এপিসি রোডে যাবে।

৭২ ঘণ্টার জন্য আমহার্স্ট স্ট্রিট, বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিট, কলেজ স্ট্রিট, নির্মলচন্দ্র স্ট্রিট, এস এন ব্যানার্জি রোড, ক্রিক রো, রফি আহমেদ  কিদওয়াই রোডে কোনও গাড়ি পার্কিং করা যাবে না।

দক্ষিণ থেকে এজেসি বোস রোডের দিকে যাওয়ার গাড়ি রবীন্দ্রসদন থেকে ধর্মতলা হয়ে  সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউয়ের দিকে ঘোরানো হতে পারে।

উত্তর থেকে এপিসি রোড ধরে এম জি রোড, রাজাবাজার ক্রসিং হয়ে নারকেলডাঙা মেন রোড ও ক্যানাল ইস্ট রোড, মানিকতলা ক্রসিং হয়ে বিবেকানন্দ রোড, আমহার্স্ট স্ট্রিট, শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড় থেকে ভূপেন বোস অ্যাভিনিউ ও সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউয়ে গাড়ি ঘোরানো হতে পারে।

এদিকে বৃহস্পতিবার থেকে রবিবারের পর্যন্ত তিনদিনই ছুটির দিন। তাই যানজট কম হবে বলে অভিমত লালবাজারের কর্তাদের। এই ক’দিনের জন্য ফ্লাইওভারের তলায় কোনও হকার বসতে পারবেন না। তবে কোলে মার্কেট খোলা থাকবে। লালবাজারে ডিসি (ট্রাফিক) সন্তোষ পাণ্ডে জানান, “১৫ আগস্ট সন্ধ্যা ৬টা থেকে ১৮ আগস্ট সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত উড়ালপুলের মাঝখানের অংশ বন্ধ থাকছে। তাই উত্তর থেকে দক্ষিণ বা দক্ষিণ থেকে উত্তরে কোনও যান চলাচল করতে পারবে না।”

[আরও পড়ুন: বেহালায় নজিরবিহীন উৎসব, রক্তদানের আলোয় উজ্জ্বল দৃষ্টিহীনের বিয়ে]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং