১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৬ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

লকডাউন শিথিল করবেন না, ইমামদের মতোই মুখ্যমন্ত্রীকে আরজি মুসলিম সংগঠনের

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: May 13, 2020 10:38 pm|    Updated: May 13, 2020 10:38 pm

Muslim Organisation urges Mamata not to ease Lock Down in State

সন্দীপ চক্রবর্তী: ইমামদের সংগঠনের মতোই আগামী ৩০ মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানোর আরজি জানাল ন্যাশনাল হিউম্যান ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন। ইদ-উল-ফিতরের দিকে তাকিয়ে যেন লকডাউন শিথিল না করা হয় তেমনটাই বলা হয়েছে। এটি মূলত মুসলিম কল্যাণে সমাজকল্যাণ মূলক সংগঠন যা বেশ কিছু বিদ্বজন নিয়ে গঠিত।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে চিঠি লিখে বলা হয়েছে যে উৎসব পালন করতে গিয়ে সাধারণ মানুষের ক্ষতি হোক সেটা মুসলিম সমাজ কেন কোনও সমাজই মানতে পারবে না। সেই কারণেই আগামী ৩০ মে পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানোর জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন রেখেছেন সংস্থার সদস্যরা। তিনদিন আগেই এই চিঠি লেখা হয়েছে। চিঠিতে সই করেছেন ন্যাশনাল চিফ সেক্রেটারি আজিজ উসমানি। মুখ্যমন্ত্রীর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে এমনটাও বলা হয়েছে, মুসলিম সমাজ আপনার পাশে আছে।

[আরও পড়ুন: লকডাউন শিথিল হলেও এখনই স্বাভাবিক হচ্ছে না হাই কোর্ট, বদল একাধিক নিয়মে]

রাজ্যের ইমামদের সংগঠন বেঙ্গল ইমামস এসোসিয়েশন এর পক্ষ থেকে একইভাবে চিঠি লিখে মুখ্যমন্ত্রীকে আগামী ৩০ তারিখ পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানোর প্রস্তাব রাখা হয়। বলা হয়েছিল যে, ‘ইদ পালন করা হবে ঘরে বসেই। মানুষ আগে বাঁচুক, পরে উৎসব। আমরা এত ত্যাগ করেছি, আরও করব। আমাদের উৎসবের দরকার নেই।’ কেন্দ্র লকডাউন তুললেও রাজ্য চালিয়ে যাক, পরামর্শ ও আবেদন করেছেন ইমামরা। তেমনই আবেদন মুসলিম সমাজের বেশ কিছু বিদ্বজনের সংগঠন হিউম্যান ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন। এমনকি কেন্দ্র যাতে শিথিল করার রাস্তায় না হাঁটে সে ব্যাপারে কেন্দ্রের কাছে দাবি তুলতেও মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠিতে বলেছেন তারা। উল্লেখ্য, এখন রমজান মাস চলছে। রোজা রাখছেন মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। আগামী ২৫ তারিখ ইদ-উল-ফিতর বা পবিত্র ইদ।

[আরও পড়ুন: লকডাউনের মধ্যেই রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর, বোনাস ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে